পতেঙ্গা আউটার রিং রোড ধসে তদন্ত কমিটি

প্রকাশিত: ১২:২৪, ১৮ জুলাই ২০১৯

আপডেট: ১২:২৪, ১৮ জুলাই ২০১৯

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: নির্মাণকাজ শেষ হওয়ার আগেই ধসে পড়েছে চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় আউটার রিং রোডের একটি অংশ। এ ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। বঙ্গোপসাগর ঘেঁষে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত এলাকায় গুরুত্বপূর্ণ এই স্থাপনা ভেঙে পড়াকে ঠিকাদারের গাফিলতি ও প্রকল্প পরিকল্পনার বড় ত্রুটি হিসেবেই দেখছেন নগর পরিকল্পনাবিদরা। তবে প্রকল্প পরিচালকের দাবি,  নকশা অনুযায়ীই কাজ করা হয়েছে।

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের পাড়ে আউটার রিং রোড ঘিরে চট্টগ্রামবাসীকে নতুন স্বপ্ন দেখিয়েছিল চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। কিন্তু পুরো প্রকল্পের নির্মাণ কাজ শেষ করার আগেই গত শনিবার আউটার রিং রোডের একটি অংশ ধসে পড়ে।

২০১৬ সালে প্রায় আড়াই হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা হতে ফৌজদারহাট পর্যন্ত বেড়িবাঁধ ও আউটার রিং রোড নির্মাণ শুরু হয়। চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের এ প্রকল্পের কাজ পায় স্পেকট্রা ইঞ্জিনিয়ারিং নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। কাজ শেষ হওয়ার কথা এ বছরের শেষে।

প্রকল্পের কাজ শেষ পর্যায়ে হলেও ওয়াকওয়ের এমন ভাঙন পুরো প্রকল্পের কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন নগর পরিকল্পনাবিদরা।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের অবহেলার কারণেই এই ধস বলে মনে করেন প্রকল্প পরিচালক ও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রধান প্রকৌশলী হাসান বিন সামস ।

তবে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান টানা বৃষ্টির দোহাই দিয়ে নিজেদের দায় এড়াতে চাইছে।

এদিকে, ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ।

প্রায় ২ হাজার ৩০০ কোটি টাকা ব্যয়ে চট্টগ্রামের শাহ আমানত সেতুর চাক্তাই খাল হতে কালুর ঘাট পর্যন্ত রিং রোড প্রকল্পের কাজও করছে একই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

এই বিভাগের আরো খবর

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি: নাব্যতা সংকটের...

বিস্তারিত
বগুড়ায় বাঁশের সেতু তৈরির কারিগর জাহিদুল

বগুড়া প্রতিনিধি: মানুষের যোগাযোগের...

বিস্তারিত
টাঙ্গাইলের ভাদ্রা-দপ্তিয়ার সড়কের বেহাল দশা

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: সংস্কারের এক মাস...

বিস্তারিত
১১ বছরেও সহজ শর্তে সিএনজি অটোরিকশা বিতরণ হয়নি

নিজস্ব প্রতিবেদক : পাঁচ হাজার চালককে...

বিস্তারিত
শাহজালালে পৌঁছেছে ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’

অনলাইন ডেস্ক: নির্দিষ্ট সময়ের ৪০...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *