ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬

2019-09-16

, ১৬ মহররম ১৪৪১

বর্ষা এলেই ভোগান্তি বাড়ে ভবদহ অঞ্চলের মানুষের

প্রকাশিত: ০৯:৫২ , ০৮ জুলাই ২০১৯ আপডেট: ১১:১৭ , ০৮ জুলাই ২০১৯

যশোর প্রতিনিধি : বর্ষা এলেই জলাবদ্ধতার কারণে ভোগান্তি বেড়ে যায় যশোরের মণিরামপুর, অভয়নগর, কেশবপুর ও সদরের একাংশের মানুষের। ব্যহত হয় ভবদহ অঞ্চল খ্যাত এসব এলাকার মানুষের স্বাভাবিক কাজকর্ম, নষ্ট হয় জমির ফসলও। দুর্ভোগ কমাতে নদী ও খাল খননের পাশাপাশি জলাবদ্ধতা থেকে রক্ষায় গৃহীত প্রকল্প বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

২০১২ সালে যশোরের বিল খুকশিয়ায় বন্ধ করে দেয়া হয় জলাবদ্ধতা থেকে রক্ষায় গৃহীত টিআরএম প্রকল্পের কাজ। এতে ভবদহ স্লুইচগেট থেকে কাশিপুর পর্যন্ত ১৭ কিলোমিটার এলাকায় পলি জমে প্রায় ভরাট হয়ে গেছে হরি নদী। ফলে জেলার অভয়নগর, মনিরামপুর, কেশবপুরসহ বিভিন্ন এলাকার প্রায় ১০ লাখ মানুষকে দীর্ঘদিন থেকে পানিবন্দি জীবনযাপন করতে হচ্ছে। বর্ষা মৌসুমে এই ভোগান্তি আরা বাড়ে। স্বাভাবিক কাজকর্ম ব্যহত হওয়ার পাশাপাশি নষ্ট হচ্ছে জমির ফসলও।

ভবদহ স্লুইচগেট পুরোপুরি সচল করতে শ্রীনদী ও হরি নদীর পলি সরানোর কাজ দ্রুত শুরু করার দাবি জানান ভুক্তভোগীরা। এছাড়া অভয়নগরের আলমডাঙ্গা খাল পুনঃখনন করে ভৈরব নদীর মুখে স্লুইসগেট বসানোর দাবিও জানিয়েছে তারা। 

এলাকার মানুষের দাবির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী স্বপন কুমার ভট্টাচার্য।

জলাবদ্ধতা দূর করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। দীর্ঘমেয়াদে জলাবদ্ধতার কারণে বিশাল এ অঞ্চলের অর্থনীতিতেও নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে। তাই দ্রুত ভবদহের দুর্ভোগ কাটানোর আহবান ভুক্তভোগীদের।
 

এই বিভাগের আরো খবর

বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটারে অতিরিক্ত বিলের অভিযোগ

নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদীতে বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটারে অতিরিক্ত বিল ও বাড়তি মিটার ভাড়া আদায়ের অভিযোগ করেছেন গ্রাহকরা। পর্যাপ্ত রিচার্জ...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is