ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬

2019-09-16

, ১৬ মহররম ১৪৪১

তথ্য ফাঁস করায় দুদক পরিচালক বরখাস্ত

প্রকাশিত: ০২:২১ , ১০ জুন ২০১৯ আপডেট: ১০:০১ , ১০ জুন ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ তদন্তের দায়িত্বে থাকা পুলিশের ডিআইজি মিজানুর রহমানের কাছে তথ্য ফাঁস করায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি ডিআইজি মিজানের সম্পদ অনুসন্ধানের কাজ থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তার জায়গায় নতুন তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ।

তিনি আরো জানান, ডিআইজি মিজানের ঘুষের টাকার উৎসও তদন্ত করবে দুদক। এসময় ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘দুদকের ৮২০ কর্মকর্তা-কর্মচারীর মধ্যে সবাই সৎ এটা নিশ্চিত করার ক্ষমতা দুদকের নেই।’

সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘অনুসন্ধানের তথ্য অভিযুক্ত ব্যক্তির কাছে প্রকাশ করায় চাকরির শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে বাছিরকে সাময়িক বরখাস্ত করা হল। ঘুষ লেনদের অভিযোগের বিষয়ে আলাদা একটি বিভাগীয় তদন্ত করা হবে।’

এর আগে এনামুল বাসিসের ঘুষ নেয়ার অভিযোগ তদন্তে তিন সদস্যের উচ্চপর্যায়ের কমিটি গঠন করা হয়েছে। সোমবার দুদক পরিচালক এনামুল বাসির সাথে কয়েকদফা বৈঠক করেছে কমিটি।

পুলিশের বির্তকিত ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে ঘুষ-দুর্নীতি-নারী কেলেঙ্কারিসহ নানা অভিযোগ এলে তার তদন্ত শুরু করে দুদক। সাময়িক বরখাস্তকৃত হওয়া পুলিশের ডিআইজি মিজানের ৪ কোটি ২ লাখ টাকার সম্পদের হিসেবের সন্ধান পায় দুদক। এরমধ্যে ১ কোটি ৯২ লাখ টাকার সম্পদের কোন প্রমাণ দেখাতে পারেননি তিনি। এ বিষয়ে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয় দুদক পরিচালক এনামুল বাসিরকে। সম্প্রতি দুদক কর্মকর্তা খন্দকার এনামুল বাসিরকে ৪০ লাখ টাকা এবং গাড়ি ঘুষ দেয়ার অভিযোগ করেন পুলিশের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমান।

মাস ছয়েক ধরে দুই জনের মধ্যে এ নিয়ে অনেক কথাবার্তা হয়েছে। এ বছর জানুয়ারিতে প্রথমে ২৫ লাখ ও পরে ১৫ লাখ টাকা দিয়েছেন মিজানুর। কিন্তু ২ জুন খন্দকার এনামুল বাসির মিজানুরকে জানান, তিনি প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন। তবে দুদক চেয়ারম্যান ও কমিশনারের চাপে তাঁকে অব্যাহতি দিতে পারেননি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মিজানুর ঘুষ লেনদেনের সব কথা ফাঁস করে দেন। প্রমাণ হিসেবে হাজির করেন এনামুল বাসিরের সঙ্গে কথোপকথনের একাধিক অডিও রেকর্ড।

এই বিভাগের আরো খবর

৪ বছরেও বেসিক ব্যাংকের দুর্নীতির তদন্ত শেষ করতে পারেনি দুদক

তাসলিমুল আলম তৌহিদ: বেসিক ব্যাংকের সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা কেলেঙ্কারির তদন্ত কার্যক্রম চার বছরেও শেষ করতে পারেনি দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক।...

বরগুনায় অস্তিত্বহীন ৬০টি মাদ্রাসার এমপিওভুক্তির আবেদন

বরগুনা প্রতিনিধি: বরগুনা সদর উপজেলায় অস্তিত্ব নেই অথচ এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন করা হয়েছে এমন ৬০টি মাদ্রাসার সন্ধান পাওয়া গেছে। এসব...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is