দোহায় আটকের খবর ঠিক নয় : পাইলট

প্রকাশিত: ০৬:৪৭, ০৭ জুন ২০১৯

আপডেট: ০৬:৪৭, ০৭ জুন ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: পাসপোর্ট ছাড়া কাতারে গেলেও দোহার হামাদ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ বিমানের পাইলট ক্যাপ্টেন ফজল মাহমুদ চৌধুরীকে আটক বা জিজ্ঞাসাবাদ করেনি।  এখন তিনি কাতারেই অবস্থান করেছেন। খুব শিগগিরই দেশে ফিরবেন বলে জানিয়েছেন ফজল মাহমুদ।

শুক্রবার (৭ জুন) মোবাইল ফোনে বিভিন্ন গণমাধ্যমে তিনি এসব কথা বলেন। নিজের ভুল স্বীকার করে ক্যাপ্টেন ফজল মাহমুদ বলেন, ‘গত ৩ জুন ভুল করে তার ব্যক্তিগত একটি  ব্যাগে থাকা পাসপোর্টটি  লকারে রেখে আসেন। ৫ জুন রাতে ফ্লাইটে ঢাকা থেকে দোহায় যান তিনি। ঢাকায় হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশনে তাঁর দুই আঙুলের ছাপ নিলেও পাসপোর্ট দেখতে চায়নি। দোহায় বিমান অবতরণের পর অফিশিয়াল ব্যাগ থেকে খুঁজতে গিয়ে পাসপোর্ট পাননি। তখন দোহা এয়ারপোর্টে বিমানের স্টেশন ম্যানেজারের সঙ্গে যোগযোগ করেন। এছাড়া ঢাকায় বিমান অফিসে কথা বলেন। তখন লকারে থাকা তাঁর ব্যক্তিগত ছোট ব্যাগে পাসপোর্ট রয়েছে বলে জানাতে পারেন। পরে অন্য ফ্লাইটে পাসপোর্টটি পাঠিয়ে দেওয়া হয় বলে তার দাবি। পাসপোর্ট না থাকায় তিনি দোহা বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশনে যাননি বলে্ও জানান পাইলট ফজল মাহমুদ। তাই কাতার ইমিগ্রেশন তার পাসপোর্টের বিষয়ে কিছু জানতে চায়নি বা আটক কিংবা জিজ্ঞাসাবাদও করেনি দাবি করেছেন তিনি।

গত প্রায় ৩০ বছর ধরে বিমানের পাইলট হিসেবে ফ্লাইট পরিচালনা করছেন ফজল মাহমুদ। অভিজ্ঞতার কারণে বিমানের ভিভিআইপি ফ্লাইটগুলো তিনিই পরিচালনা করে থাকেন।

এই বিভাগের আরো খবর

৭ মে পর্যন্ত বিমান চলাচল বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক: করোনা ভাইরাস...

বিস্তারিত
একটি দ্বীপে একটি বাড়ি

অনলাইন ডেস্ক: চারিদিকে সমুদ্র, ছোট...

বিস্তারিত
কম টাকায় ভ্রমণ করুন খৈয়াছড়া ঝর্ণায়

অনলাইন ডেস্ক: ঢাকার কমলাপুর বা...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *