ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬

2019-09-16

, ১৬ মহররম ১৪৪১

​​​​​​​ঘূর্ণিঝড় ‘আইলা’ উপকূলে আঘাত হানে এই দিনে

প্রকাশিত: ১০:৪৩ , ২৫ মে ২০১৯ আপডেট: ১০:৪৩ , ২৫ মে ২০১৯

পটুয়াখালী প্রতিনিধি: আজ ভয়াল ২৫ মে; ২০০৯ সালের এই দিনে উপকূলে আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড় ‘আইলা’। মারা যান কয়েকশ মানুষ। দুর্যোগের পর ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ ঘুরে দাঁড়ালেও উপকূলকে নিরাপদ করতে এখনও অধিকাংশ এলাকায় টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা হয়নি। সমুদ্রতীরের জেলা পটুয়াখালীর পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা বলছেন, অপ্রতুল বরাদ্দের কারণেই তা সম্ভব হয়নি। তবে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ না হলেও উপকূলীয় এলাকায় অনেক আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে। পাশাপাশি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় সরকারের মাঠ পর্যায়ের সক্ষমতা বেড়েছে বলেও জানালেন সংশ্লিষ্টরা।
এক দশক আগে ঘূর্ণিঝড় আইলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয় বাংলাদেশের উপকূল।  সমুদ্র তীরের অন্যান্য জেলার মতো পটুয়াখালীতেও চলে তাণ্ডব। উপকূলের নিরাপত্তায় টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের তাগিদ তখন থেকে জোরালো হতে থাকে। পটুয়াখালীতে বেড়িবাঁধ আছে সাড়ে ১৩শ’ কিলোমিটার। এর মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত ৫৭ কিলোমিটার। আবার ঝুঁকিপূর্ণ কোন কোন এলাকাতে বেড়িবাঁধই নেই। 
পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা জানালেন, বরাদ্দ কম থাকা এবং জনবল সংকটের কারণে বাঁধগুলো সংস্কার ও নতুন এলাকায় বেড়িবাঁধ নির্মাণ সম্ভব হচ্ছে না। 
তবে বেড়িবাঁধ সংস্কার ও নির্মাণে ঘাটতি রয়ে গেলেও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় বেশ কিছু সাফল্য অর্জিত হয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। এক দশকে পটুয়াখালীতে নির্মিত হয়েছে প্রায় চারশ' আশ্রয় কেন্দ্র। দুর্যোগপূর্ব  ও পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় সক্ষমতাও বেড়েছে।
এসব সাফল্যের পাশাপাশি ঊপকূলে প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষয়ক্ষতি কমাতে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ এবং সামাজিক বনায়ন বাড়ানোর তাগিদ দিলেন সংশ্লিষ্টরা। 

এই বিভাগের আরো খবর

মাগুরায় জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে লাউ চাষ

মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরার বারইপাড়া, নড়িহাটি, শ্রীপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় কৃষকরা বাণিজ্যিকভাবে লাউ চাষ করছেন। জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এ লাউ চাষ।...

কমে আসছে মৌসুমী বায়ুর সক্রিয়তা

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কমে আসছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, শনিবার-১৪ সেপ্টেম্বর সকাল থেকে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is