ঢাকা, রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

2019-07-20

, ১৭ জিলকদ ১৪৪০

দেশের বিষের বাজান পুরোটাই আমদানি নির্ভর

প্রকাশিত: ১০:৩৭ , ০৭ মে ২০১৯ আপডেট: ১২:২৯ , ০৭ মে ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে বিষের চাহিদা যেমন ক্রমেই বেড়েছে, তার যোগান দিতে বাংলাদেশে ছোট-বড় সব মিলিয়ে গড়ে উঠেছে আড়াই’শটি কোম্পানি। বেশ লাভজনক বাণিজ্য হওয়ায় বিষের বাজারেও হয়েছে শতাধিক অবৈধ কোম্পানি। দেশে কোন বিষ তৈরি করে না কোন প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করে নিজেদের মোড়কে ভরে বাজারে ছাড়ে বলে জানান বিশেষজ্ঞরা। তবে অনিবন্ধিত কোম্পানিগুলোর বাজারজাত করা বিষের মান প্রশ্নবিদ্ধ এবং এর নেতিবাচক প্রভাব বেশি।

ভীষণ ব্যস্ত কারওয়ান বাজারের এই গলিতে প্রতিদিন সকাল থেকে রাত অবধি ইঁদুর, ছাড় পোকা, তেলাপোকাসহ বিভিন্ন পোকা মাড়ার বিষের পসরা সাজিয়ে বসে কয়েকজন। কিন্তু টেলিভিশনের ক্যামেরা দেখেই সটকে পরে। দোকানের কাছে গিয়ে দেখা যায়, তেলাপোকা, ছাড়পোকা ও উঁদুর মারার প্রায় ৪ থেকে ৫ পদের বিষ বেচা হয় এখানে। তবে এসব বিষের বাজারজাতকারী প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা নেই। 


একই চিত্র রাজধানীর পুরান ঢাকার চকবাজারের এই দোকানে। বিষ ও সারের ডিলারদের দোকানেও অধিকাংশ পণ্যে নেই বিষ সরবরাহকারী কোম্পানির পূর্নাঙ্গ ঠিকানা। তবে এসব পণ্য আসল এবং শতভাগ কাজ করে বলে দোকানীদের দাবি।

তবে সাধার ক্রেতাদের অভিযোগ, বিষ কিনে নিয়ে প্রয়োগ করেও তেলাপোকা ও ইঁদুরের উৎপাত  কমে না, বড়জোড় কিছুক্ষণ অচেতন থাকে তারপর যেই-সেই, আগের মতই শুরু হয় উৎপাত।


বিশেষজ্ঞরা জানান, পরিমাণ মত বিষ না পাওয়ায় মানুষ একদিকে আর্থিক ক্ষতিতে পরে। অপর্যাপ্ত মাত্রার বিষ পোকা নিধনে কাজ অকেজো, ফলে সেই বিষটি দেহে সহ্য করার ক্ষমতা তৈরী করে ফেলে পোকা বা প্রাণীগুলো। ফলে পরবর্তিতে সঠিক মাত্রার বিষ দিলেও সেসব পোকা, প্রাণীর দেহে আর কাজ করেনা। প্রয়োজন হয় নতুন আরো শক্তিশালী বিষের। তাই বিশেষজ্ঞরা বিষ বাণিজ্যে নজরদারি চান।

২০১৭ সালের এক জরিপ বলছে, চায়নার রপ্তানি আয়ের ১৪ শতাংশ আসে বিষ রপ্তানি করে। জার্মানী ১২ এবং যুক্তরাষ্ট্রর সাড়ে এগারো শতাংশ রাজস্ব আয় করে বিষ রপ্তানি করে।

এই বিভাগের আরো খবর

কাপ্তাই হ্রদ সৃষ্টির পরই কৃষিবাণিজ্য সম্প্রসারিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: পাহাড়ী এলাকা বিচিত্র কৃষিপণ্য উৎপাদনের বিশাল ক্ষেত্র হলেও সেখানের ক্ষুদ্র জাতি গোষ্ঠীগুলোর মধ্যে কৃষি বাণিজ্যের ধারণা...

উচ্চ ফলনের তাগিদ ছিল না, কৃষি উন্নয়নে হয়নি গবেষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ১৩ সহস্রাধিক বর্গ কিলোমিটারের পার্বত্য চট্টগ্রাম ১৮৬০ সাল পর্যন্ত পরিচিত ছিল কোরপস নামে। ১৩০ বছর আগে এখানকার লোকসংখ্যা...

চাহিদার তুলনায় অর্ধেক সবজি উৎপাদন

নিজস্ব প্রতিবেদক: এক দশকে উৎপাদন দ্বিগুণ হলেও চাহিদার তুলনায় অর্ধেক সবজি উৎপাদন হচ্ছে প্রতি বছর। দুর্বলতা ও সীমাবদ্ধতাগুলো দূর করে চাষের...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is