৪ ভুল খাদ্যাভ্যাস মৃত্যুর হার বাড়ায়

প্রকাশিত: ১২:৩৪, ২৫ এপ্রিল ২০১৯

আপডেট: ১২:৩৪, ২৫ এপ্রিল ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক: সুস্থ সুন্দর জীবনযাপনের জন্য নিয়মিত একটি সুস্থ খাদ্যাভ্যাস মেনে চলার কোনো বিকল্প নেই। তা না হলে শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের উপর নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। স¤প্রতি একটি গবেষণায় জানা গেছে বিশ্বে যতো মানুষ মারা যায়, তার পাঁচ ভাগের এক ভাগ মারা যায় কম পুষ্টিকর খাবার খেয়ে। ওই গবেষণায় জানা গেছে, ২০১৭ সালে বিশ্বে ১১ মিলিয়ন মানুষ মারা গেছে অপুষ্টিকর খাবার খেয়ে। আর অপুষ্টির কারণে হৃদরোগ, কয়েক ধরনের ক্যানসার, টাইপ ২ ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত হয়ে সেসব মানুষ মারা যায়। এক্ষেত্রে প্রতিদিন আমরা খাদ্য গ্রহণে যেসব ভুল করি, সেগুলো সম্পর্কে এখনই সচেতন হওয়া উচিত।

পর্যাপ্ত বাদাম না খাওয়া: নতুন এক গবেষণায় বলা হয়েছে, যে খাবারটা জরুরি হলেও খুব কম খাই আমরা, তা হলো বাদাম ও বীজ। প্রতিদিন যে পরিমাণ বাদাম বা বীজ খাওয়ার পরামর্শ দেন পুষ্টিবিদরা, তার প্রয়োজনীয় মাত্র ১২ শতাংশ খাই আমরা। এক্ষেত্রে প্রতিদিন ২১ গ্রাম বাদাম বা বীজ খাওয়া উচিত। বাদামে প্রচুর প্রোটিন, আঁশ, হৃদপিন্ডের জন্য উপকারি ফ্যাট ও ভিটামিন আছে। তাই অস্বাস্থ্যকর স্যাচুরেটেড ফ্যাটের পরিবর্তে বাদাম খাওয়ার অভ্যাস করতে বলছেন পুষ্টিবিদরা।

দুধ পানে অনীহা : নতুন গবেষণায় জানা গেছে, বিশ্বজুড়েই মানুষ তার প্রতিদিনের প্রয়োজনের মাত্র ১৬ শতাংশ দুধ পান করছে। প্রতিদিন একজন মানুষের ৪৩৫ গ্রাম দুধ পান করা উচিত বলেই জানা গেছে ওই গবেষণায়। দুধ পান কতোটা স্বাস্থ্যসম্মত তা নিয়ে গত কয়েক বছর জুড়ে বিতর্ক চললেও দুধ ও দুধজাত খাবার ওজন কমায়, বিশেষ করে শিশুদের হাড় মজবুত করা ও শরীর সুস্থ রাখে বলেই পুষ্টিবিদরা বলেন।

খাদ্য শস্য কম খাওয়া : গবেষণায় দেখা গেছে, আমাদের প্রতিদিন যতটুকু খাদ্যশস্য খাওয়া উচিত, সে পরিমাণ খাদ্য শস্যা খাওয়া হয় না অনেকের। প্রপ্ত বয়ষ্ক একজন মানুষের প্রতিদিন ১২৫ গ্রাম খাদ্যশস্য খাওয়ার পরামর্শ দেন পুষ্টিবিদরা। পর্যাপ্ত খাদ্যশস্য হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়, হজম শক্তি বাড়ায় ও শরীরের ওজন ঠিক রাখে। নতুন গবেষণায় বলা হয়েছে, গমের তৈরি রুটি, ব্রাউন রাইস, বার্লি, ওটমিল এসব খেতে হবে পরিমাণ মতো।

বেশি লবণযুক্ত খাবার, চিনিযুক্ত পানীয় ও প্রক্রিয়াজাত মাংস গ্রহণ : অতিরিক্ত সোডাযুক্ত পানীয় গ্রহণ শরীরের জন্য খুব ক্ষতির কারণ। এতে ওজন বেড়ে যাওয়া, ডায়াবেটিস হওয়া, দাঁত ক্ষয় হওয়ার সমস্যা দেখা দেয়। এমনকি ডায়েট সোডা পান করলেও স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক, স্মৃতি লোপ পাওয়া, ওজন বেড়ে যাওয়া এসবের ঝুঁকি বাড়ে। অতিরিক্ত লবণ খাওয়া উচ্চ রক্তচাপ, স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়। আর প্রক্রিয়াজাত মাংস ডায়াবেটিস, হৃদরোগ ও বেশ কিছু ক্যানসারের কারণ হয়।
সূত্র: হেলথ

 

এই বিভাগের আরো খবর

গলা ব্যথায় দুধ-হলুদের ঘরোয়া টোটকা

অনলাইন ডেস্ক: শীত মৌসুমে এমনিতেই...

বিস্তারিত
যেভাবে ‘চা’ খেলে ক্যান্সার হতে পারে!

অনলাইন ডেস্ক: কাজের ফাঁকে এক কাপ চা...

বিস্তারিত
হার্ট ভালো রাখে বেদানার জুস

অনলাইন ডেস্ক: শরীর সুস্থ রাখতে ও...

বিস্তারিত
দ্রুত শক্তি বাড়ায় যেসব খাবার 

অনলাইন ডেস্ক: ব্যস্ত জীবনে শরীরের...

বিস্তারিত
চীন ফেরত ৩১২ জন বাড়ি ফিরছেন আজ: আইইডিসিআর

নিজস্ব প্রতিবেদক: হজ ক্যাম্পে থাকা...

বিস্তারিত
অতিরিক্ত মেদ কমাতে করলা যেভাবে খাবেন

অনলাইন ডেস্ক: কায়িক পরিশ্রম না করা আর...

বিস্তারিত
রোগ প্রতিরোধে ভুট্টা

অনলাইন ডেস্ক: অনেকেই ভুট্টা খেতে...

বিস্তারিত
আকন্দ গাছের ভেষজ গুণ

অনলাইন ডেস্ক: আমাদের দেশের বিভিন্ন...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *