নুসরাত হত্যাকাণ্ডে ফেনীর পুলিশ সুপার ও সোনাগাজীর সাবেক ওসিকে জিজ্ঞাসাবাদ

প্রকাশিত: ০৯:০২, ২৫ এপ্রিল ২০১৯

আপডেট: ১১:৩১, ২৫ এপ্রিল ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত হত্যা মামলায় ফেনীর পুলিশ সুপার ও সোনাগাজী থানার ওসিকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে তদন্ত কমিটি। ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে দায়িত্বে অবহেলা ও ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টার প্রাথমিক প্রমাণ পেয়েছে পুলিশ সদর দপ্তরের তদন্ত দল। ওসিকে রক্ষার চেষ্টা ও নুসরাতের পরিবারকে দায়ী করে ফেনীর পুলিশ সুপারের লেখা চিঠিও খতিয়ে দেখছে তারা।

ফেনীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহানের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়ার পর থেকেই সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন ও স্থানীয় প্রশাসনের বিরুদ্ধে ঘটনা ভিন্ন খাতে নেয়ার অভিযোগ ওঠে। এ অভিযোগের পরই প্রত্যাহার করা হয় অভিযুক্ত ওসিকে। আলাদাভাবে বিষয়টি তদন্ত করে পুলিশ সদর দপ্তর।

ওসিকে প্রত্যাহার করার পর ঘটনার জন্য নুসরাতের পরিবারকে দায়ী করে পুলিশ সদর দপ্তরে চিঠি পাঠান ফেনীর পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম। চিঠিতে বলা হয়, নুসরাতের পরিবার মামলা করতে কালক্ষেপণ করেছে। ঘটনার পর থেকে থানা পুলিশ যথাযথ ব্যবস্থা নিয়েছে বলেও চিঠিতে উল্লেখ করেন তিনি।

বিশিষ্টজনেরা বলছেন, এসপির চিঠি অভিযুক্তদের রক্ষা করার অপচেষ্টা। দায়িত্বশীল পদে থেকে এমন আচরণ ন্যায় বিচারের পরিপন্থী।

এদিকে, এসপি কেন এমন চিঠি পাঠিয়েছে তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ সদর দপ্তরের তদন্ত দল। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ওসি এবং এসপিসহ ৪০ জনকে জিঙ্গাসাবাদ করেছে তারা। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ হলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তদন্ত দলের প্রধান এস এম রুহুল আমিন। 

স্থানীয় প্রশাসন ও মাদ্রাসার পরিচালনা পর্ষদ যদি আগে থেকে ব্যবস্থা নিতো তাহলে নুসরাতের এমন পরিণতি না হতে পারতো বলে মনে করেন তিনি।

এই বিভাগের আরো খবর

ডুয়েট শিক্ষক সমিতির নির্বাচন

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা প্রকৌশল ও...

বিস্তারিত
করোনায় আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ আইইডিসিআরের

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ রোগতত্ত,...

বিস্তারিত
আরামবাগে বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর মতিঝিলের...

বিস্তারিত
কচুরিপানার আলোচনা গড়ালো সংসদে

অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশের মানুষকে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *