ঢাকা, শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬

2019-08-16

, ১৪ জিলহজ্জ ১৪৪০

বন্ধ রয়েছে গাইবান্ধায় যমুনার তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের কাজ

প্রকাশিত: ১০:২৪ , ২০ এপ্রিল ২০১৯ আপডেট: ১২:০২ , ২০ এপ্রিল ২০১৯

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধায় যমুনা নদীর তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের কাজ প্রায় দেড় মাস ধরে বন্ধ রয়েছে। নদীর ডান দিকের তীর রক্ষার এই প্রকল্পের কাজ নির্ধারিত সময়ে শেষ করা নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। ফলে বর্ষা মৌসুমে নদী ভাঙনের আশঙ্কা করছেন সদরসহ পাঁচ উপজেলার মানুষ। বর্ষার আগেই কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

গাইবান্ধা সদরের বাগুড়িয়া থেকে ফুলছড়ির গজারিয়া গণকবর পর্যন্ত যমুনা নদীর ডান তীরে কয়েক বছর ধরেই ভাঙছে। অব্যাহত ভাঙন ঠেকাতে পানি উন্নয়ন বোর্ড যমুনা নদীর ডান তীর সংরক্ষণ প্রকল্প হাতে নেয়। ২০১৮ সালের জুনে এই প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। যা ২০২১ সালের জুন মাসে শেষ হওয়ার কথা।

এরই মধ্যে বাগুড়িয়ায় ৩শ মিটার, ফুলছড়ির বালাসিতে ৬শ মিটার, সিংড়িয়ায় ৮শ মিটার ও গণকবর এলাকায় ৭শ মিটারসহ মোট ২৪০০ মিটার অংশে কাজ শুরু হয়েছে। কিন্তু, গত ৫ মার্চ থেকে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান প্রকল্পের কাজ বন্ধ করে দেয়। এতে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে প্রকল্পের কাজ। ফলে আগামী বর্ষায় এসব এলাকায় নদী ভাঙনের আশংকা দেখা দিয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড বলছে, কাজের অগ্রগতি না হওয়ায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি বাতিল করা হয়েছে। বর্ষার আগেই কাজ শুরু হবে উল্লেখ করে স্থানীয়দের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

তবে, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান বলছে, কাজের যথেষ্ট অগ্রগতি থাকার পরও ৭ দিনের নোটিশে কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

গাইবান্ধার পাঁচ উপজেলার মানুষের বসত ভিটা ও ফসলি জমি রক্ষায় প্রকল্পের কাজ দ্রুত শুরু করার দাবি জানিয়েছেন নদী তীরবর্তী বাসিন্দারা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

পাবনায় গণপিটুনিতে নিহত ২

পাবনা প্রতিনিধি: পাবনার সাঁথিয়ায় ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনিতে দুইজন নিহত হয়েছে। শুক্রবার রাত ১২টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। পুলিশের দাবি, নিহতরা...

ফরিদপুরে বন্যায় সাড়ে চার হাজার হেক্টর জমির ফসল নষ্ট

ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরে সাম্প্রতিক বন্যায় নষ্ট হয়ে গেছে সাড়ে চার হাজার হেক্টর জমির ফসল। পঁচে গেছে আমন ধানের বীজতলাও। নতুন করে ফসল আবাদ...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is