ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

2019-07-22

, ১৯ জিলকদ ১৪৪০

চাঁদা না দেয়ায় সিলেটে জেটি নির্মাণ কাজ বন্ধ 

প্রকাশিত: ০৯:২২ , ২২ মার্চ ২০১৯ আপডেট: ১১:৫০ , ২২ মার্চ ২০১৯

সিলেট প্রতিনিধি: চাঁদা না দেয়ায় সিলেটে পিডিবি’র পাওয়ার প্ল্যান্টের জেটি নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। তাদের ভয়ে জেটি নির্মাণের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারাও এলাকা ছাড়া। সিলেটের কুমারগাঁও বিদ্যুৎ কেন্দ্র সম্প্রসারণের জন্য জন্য সুরমা নদীতে অস্থায়ী জেটি নির্মাণের কাজ করছিল এ এম এম এস লজিস্টিক কোম্পানী লিমিটেড। পুলিশের কাছে অভিযোগ করার পর তারা ঘটনা তদন্ত করছে। 
সিলেট সদরের কুমারগাঁও এলাকায় বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড পিডিবি’র ১৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি সম্প্রসারণ করে আরো ৭৫ মেগাওয়াট নতুন উৎপাদন কেন্দ্র নির্মাণের কাজ করছে চীনের সাংহাই ইলেক্ট্রনিক কোম্পানি। এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য চীন থেকে ভারী যন্ত্রপাতি আমদানি ও তা কেন্দ্র পর্যন্ত নিতে কুশিয়ারা নদীতে চলছিল অস্থায়ী জেটি নির্মাণের কাজ। চীনের হানসা মেয়র কোম্পানির স্থানীয় এজেন্ট হিসেবে এই কাজ করছিল এএমএমএস লজিস্টিকস কোম্পানি লিমিটেড।

প্রকল্পের দায়িত্বপ্রাপ্ত এ এম এম এস লজিস্টিকস কোম্পানীর কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহরিয়ার অভিযোগ করেন, স্থানীয় কিছু সন্ত্রাসী তাদের কাছে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দেয়ায় গত ১৭ই মার্চ অস্ত্রের মুখে তাকে তুলে নিয়ে যায়। 

পরে কাজের ভাগ এবং চাঁদা দেয়ার প্রতিশ্রুতি আদায় করে তাকে ছেড়ে দেয় সন্ত্রাসীরা। তাদের ভয়ে কাজ বন্ধ করে তিনি এলাকা ছেড়ে চলে যান। বিষয়টি তিনি চীনা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন।

সন্ত্রাসীদের চাঁদা দাবির বিষয়টি পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাদেরও জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জানান, তারা ঘটনা তদন্ত করছেন এবং প্রকল্পের কাজের সর্বোচ্চ নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিয়েছেন।

বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ সরকারের অগ্রাধিকার প্রকল্প। নির্বিঘ্নভাবে প্রকল্পের কাজ করতে সব ধরনের সহায়তা দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এই বিভাগের আরো খবর

মিন্নির জবানবন্দি প্রত্যাহার ও চিকিৎসার আবেদন নামঞ্জুর

নিজস্ব প্রতিবেদক: বরগুনায় আলোচিত রিফাত হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার তার স্ত্রী মিন্নির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রত্যাহার ও হাসপাতালে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is