শেরপুরের সীমান্তবর্তী গ্রামগুলোয় খাবার পানির তীব্র সংকট

প্রকাশিত: ১০:০৪, ১৮ মার্চ ২০১৯

আপডেট: ১১:১৫, ১৮ মার্চ ২০১৯

শেরপুর প্রতিনিধি: শেরপুরের সীমান্তবর্তী শ্রীবরদী ও ঝিনাইগাতীর ১০টি গ্রামে খাবার পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। পাহাড়ী ঝর্ণা, পুকুর ও মাটির কুয়ার পানিই তাদের একমাত্র ভরসা। ফলে ডায়রিয়াসহ পানি নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন বাসিন্দারা। সংকট নিরসনে দ্রুত গভীর নলকূপ স্থাপনের উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছেন জনস্বাস্থ্য বিভাগ।

নলকূপে পানি নেই, তাই এভাবেই পানির জন্য সংগ্রাম করতে হয় শেরপুরের শ্রীবর্দী ও ঝিনাইগাতী সীমান্তের ১০টি গ্রামে মানুষের। প্রতিবছরই বসন্তকালে খাবার পানির সংকট দেখা দেয় এসব এলাকায়। ফলে দৈনন্দিন কাজের জন্য পাহাড়ী ঝর্ণা, পুকুর ও মাটি খনন করে তৈরি করা কুয়ার পানির উপর নির্ভরশীল তারা।

বিশুদ্ধ পানি সংকটের কারণে মানবেতর জীবন যাপন করতে হয় এসব এলাকার বাসিন্দাদের। খোলা পানি পান করায় ডায়রিয়াসহ পানিবাহিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে গ্রামবাসী।সীমান্তবর্তী এলাকায় পানি সংকটের কথা স্বীকার করে দ্রুত গভীর নলকূপ স্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছে জনস্বাস্থ্য বিভাগের উপÑসহকারি প্রকৌশলী মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান।
  
শ্রীবর্দী ও ঝিনাইগাতী সীমান্তের এই দশটি গ্রামে কয়েক হাজার মানুষের বসবাস। এসব এলাকায় বিশুদ্ধ পানি নিশ্চিত করতে দ্রুত গভীর নলকূপ স্থাপন করার দাবি জানিয়েছেন ভোক্তভোগীরা।

এই বিভাগের আরো খবর

কুমিল্লায় দৃষ্টিনন্দন বোতল বাড়ি!

কুমিল্লা সংবাদদাতা: বোতল দিয়ে তৈরী...

বিস্তারিত
মিরসরাইয়ে অবাধে চলছে চোরাই তেল বিক্রি

ফেনী সংবাদদাতা: ঢাকা-চট্টগ্রাম...

বিস্তারিত
কুষ্টিয়ায় ছুরিকাঘাতে কিশোর খুন

কুষ্টিয়া সংবাদদাতা: কুষ্টিয়ায় ফুটবল...

বিস্তারিত
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা লকডাউন

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা : করোনা ভাইরাসের...

বিস্তারিত
সেতু থেকে নদীতে পড়ে শিশু নিখোঁজ

নীলফামারী সংবাদদাতা: নীলফামারীর...

বিস্তারিত
নাটোরে কৃষকের হাত-পা কেটে দিল প্রতিপক্ষ

নাটোর সংবাদদাতা: বাড়ির সীমানায় আম গাছ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *