৯৪-এ পা দিলেন কিংবদন্তি চলচ্চিত্র পরিচালক মৃণাল সেন আপডেট: ০৯:১২, ১৪ মে ২০১৭

বিনোদন প্রতিবেদক: কিংবদন্তি চলচ্চিত্র পরিচালক মৃণাল সেন দেখতে দেখতে ৯৪ বছরে পা দিলেন। ১৯২৩ সালের ১৪ মে বাংলাদেশের ফরিদপুরে তাঁর জন্ম হয়। পড়াশোনা কলকাতার স্কটিশ চার্চ কলেজ। এরপর কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থবিদ্যা পড়াশোনা করেন।

প্রথম জীবনে বামপন্থী চিন্তাধারায় উদ্বুদ্ধ হয়ে ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির সাংস্কৃতিক শাখার সঙ্গে যুক্ত হন মৃণাল সেন। সাংবাদিকতাও করেন কিছু দিন। চলচ্চিত্র জগতে শব্দ কলাকুশলী হিসাবে কাজ শুরু করেন।

মৃণাল সেনের প্রথম পরিচালিত চলচ্চিত্র হল 'রাতভোর'৷ এ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন উত্তমকুমার। চলচ্চিত্র জগতে তাঁকে পরিচিতি দেয় ১৯৫৯ সালে মুক্তি পাওয়া ‘নীল আকাশের নীচে’। ১৯৭৬ সালে তৈরি করা তাঁর ছবি ‘মৃগয়া’-তে প্রথম অভিনয়ের সুয়োগ করে দেন পরবর্তী কালের সুপারস্টার মিঠুন চক্রবর্তীকে।  

১৯৮৫ সালে মৃণাল সেনের তৈরি ‘জেনেসিস’ নামে একটি ছবি একসঙ্গে হিন্দি, ফরাসি ও ইংরেজি তিনটি ভাষায় তৈরি হয়। মৃণাল সেনের পরিচালনায় শেষ ছবি ‘আমার ভুবন’ মুক্তি পায় ২০০২ সালে।

ভারতীয় সিনেমায় মৃণাল সেনের তৈরি চলচ্চিত্র এক অন্য মাত্রা যোগ করে। তাঁর পরিচালনায় মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি দেশ থেকে বিদেশে প্রশংসা  কুড়িয়েছে বেশি। পাশাপাশি বহু পুরস্কার তিনি পেয়েছেন। তিনি ভারত সরকার দেয়া 'পদ্মভূষণ' উপাধি লাভ করেন ১৯৮১ সালে। ২০০৫ সালে পান ভারতীয় চলচ্চিত্রে সর্বোচ্চ স্বীকৃতি 'দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার'।

মৃণাল সেন ১৯৯৮ থেকে ২০০৩ পর্যন্ত ভারতীয় সাংসদে সাম্মানিক সদস্যপদ লাভ করেছিলেন। ফরাসি সরকার মৃণাল সেনকে 'কম্যান্ডার অফ দি অর্ডার অফ আর্টস অ্যান্ড লেটারস' সম্মানে সম্মানিত করে। রাশিয়ার পক্ষ থেকে তাঁকে 'অর্ডার অফ ফ্রেন্ডশিপ' সম্মানে ভূষিত করা হয়।

 

Publisher : Jyotirmoy Nandy