ঢাকা, রবিবার, ১৯ মে ২০১৯, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

2019-05-18

, ১৩ রমজান ১৪৪০

উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে চার প্রার্থীই ব্যবসায়ী

প্রকাশিত: ০৯:২০ , ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ আপডেট: ১১:৪১ , ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে ৫ প্রার্থীর মধ্যে ৪ জন ব্যবসায়ী। স্নাতক বা তাঁর বেশি পড়াশোনা করা প্রার্থীর সংখ্যা চার। বার্ষিক আয়, সম্পদ ও ঋণ নেয়ায় এগিয়ে আছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী আতিকুল ইসলাম। সম্পদশালীর দিক থেকে দ্বিতীয় স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুর রহিম। তাঁর বিরুদ্ধে ৮টি মামলা বিচারাধীন। রিটার্নিং কর্মকর্তার নিকট জমা দেয়া হলফনামায় প্রার্থীরা এসব তথ্য দিয়েছে।

১৬ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক আতিকুল ইসলাম ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন মেয়র পদে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী। তার বার্ষিক আয় ১ কোটি টাকার বেশি। ব্যাংকে জমা ১ কোটি টাকা, শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ সাড়ে তিন কোটি টাকা। মোট অস্থাবর সম্পদ প্রায় পাঁচ কোটি টাকা। আর স্থাবর সম্পদ আছে প্রায় ৭ কোটি টাকার। গৃহ ঋণ নিয়েছেন ১ কোটি টাকার বেশি। এছাড়া স্ত্রীর বার্ষিক আয় ২৫ লাখ টাকার বেশি, অস্থাবর সম্পদ ২ কোটি ৭৫ লাখ টাকার ও স্থাবর সম্পদ আছে ৮২ লাখ টাকার। হলফনামার তথ্য অনুযায়ী কোটি টাকার সম্পদ থাকলেও তাঁদের কোন গাড়ি নেই।

জাতীয় পার্টির প্রার্থী ব্যান্ড শিল্পী শাফিন আহমেদের বার্ষিক আয় সাড়ে আট লাখ টাকা। অস্থাবর সম্পদ উল্লেখ করেছেন ৬ লাখ ৬০ হাজার টাকার। স্থাবর কোন সম্পদ নেই। এছাড়া স্ত্রীর ২৫ ভরি স্বর্ণ ছাড়াও ৫৫ হাজার টাকার অস্থাবর সম্পদ আছে উল্লেখ করেছেন হলফনামায়।

পিডিপির প্রার্থী শাহীন খান এক মামলার আসামী। হলফনামায় পেশা ব্যবসা বললেও কোন আয় উল্লেখ করেননি। তবে আয় না থাকলেও আছে নগদ ও ব্যাংকে জমা টাকা, চড়েন ৮ লাখ টাকার গাড়িতে। মোট অস্থাবর সম্পদ ১৫ লাখ টাকার বেশি।

ন্যাশনাল পিপলস পাটির প্রার্থী আনিসুর রহমান পেশায় সমাজসেবী। বার্ষিক আয় প্রায় আড়াই লাখ টাকা, অস্থাবর সম্পদ ২ লাখ ৩০ হাজার বলে উল্লেখ করেছেন হলফনামায়। স্ত্রীর বার্ষিক আয় ১ লাখ ২০ হাজার টাকা, অস্থাবর সম্পদ ১ লাখ ১৮ হাজার টাকা ও ২০ ভরি স্বর্ণ এবং স্থাবর সম্পদ হিসেবে ১টি ফ্ল্যাট দেখিয়েছেন।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ আবদুর রহিম আট মামলার আসামী। পেশায় ব্যবসায়ী এই প্রার্থীর বার্ষিক আয় প্রায় ৪ লাখ টাকা। শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ ৩ কোটি টাকার বেশি, ব্যাংকে জমা ৬৫ লাখ টাকা ও দুইটি গাড়িসহ ৪ কোটি টাকার অস্থাবর সম্পদ আছে উল্লেখ করেছেন হলফনামায়। কৃষি জমি ৮৮ শতাংশ, ৩১ হাজার টাকার অকৃষি জমি ও ৫০ লাখ টাকা মূল্যের ফ্ল্যাট আছে তাঁর। স্ত্রীর বার্ষিক আয় প্রায় ৩ লাখ টাকা, শেয়ার বাজারে ২ কোটি টাকার বেশি বিনিয়োগ, ব্যাংকে জমা ৮৮ লাখ টাকা সহ মোট অস্থাবর সম্পদ ৩ কোটি টাকার বেশি। কৃষি জমি ৫২ শতাংশ। এছাড়া ঋণ আছে ৭৮ লাখ টাকা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

রাজধানীতে ভেজালবিরোধী অভিযান, ২৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক : উচ্চ আদালতের আদেশ অনুযায়ী বাজারে বিক্রির জন্য নিষিদ্ধ হওয়া ৫২ পণ্যের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করেছে জাতীয় ভোক্তা...

রাজধানীর সড়কে প্রাণ গেল এক নারীর

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর নিউমার্কেট থানাধীন এলিফ্যান্ট রোডের বাটা সিগনাল মোড়ে দুই প্রাইভেটকারের সংঘর্ষে এক নারী নিহত হয়েছেন। নিহতের...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is