ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-19

, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

বিয়ে নিবন্ধন আদালতের চোখে আইনি দলিল

প্রকাশিত: ১০:৪৯ , ১২ মে ২০১৭ আপডেট: ১০:৪৯ , ১২ মে ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিয়ে নারী পুরুষের বন্ধনের আইনি দলিল হলেও আচার অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে বর-কনে ও তাদের পরিবারের ধর্মের প্রভাব থাকে। এছাড়া সামাজিক সংস্কৃতি, স্থান ও আর্থিক সামর্থ্য ভেদে পার্থক্য হয় লোকাচারে। এছাড়াও হচ্ছে আরো পরিবর্তন।

দেশে মুসলমান বর-কনের বিয়ে কখনই মসজিদে হয় না,বাসায় বা ভাড়া করা কমিউনিটি সেন্টারে হয়ে থাকে। কিন্তু খ্রিষ্টানদের বিয়ে হয় গির্জায়। অনুষ্ঠান হয় বাইরে। হিন্দু ও বৌদ্ধরা মন্দির ও প্যাগোডায় অথবা তার বাইরেও বিয়ের আয়োজন করে। বিয়ে নিয়ে ধর্মীয় আচার পালনের ক্ষেত্রে কিছু পরিবর্তনের পর্যবেক্ষণ জানান সংশ্লিষ্টরা।  

তবে বিয়ের জাকজমক অনুষ্ঠান আয়োজন হয় উপাসনালয়গুলোর বাইরে। এক সময় গ্রামে তো বটেই, শহরেও অনুষ্ঠান হতো কনে ও বরের বাড়িতে। এখন শহরে বাসায় হয় খুব কম বিয়ে।

ধর্ম মতে বিয়ে পড়ানো হলেও দেশের আইন অনুযায়ী বিয়ের নিবন্ধনের বিধান রয়েছে। যা আদালতের চোখের আইনি দলিল। তবে এই নিবন্ধনের চর্চা নগর ও শহরে যতটা গুরুত্বের সাথে আছে ততোটা নেই গ্রামাঞ্চলে।

গ্রাম ও শহরের বিয়ের অনুষ্ঠানের মধ্যে বরাবরই কিছু না কিছু পার্থক্য ছিল। এক সময়ে পাল্কির ব্যবহার শহর থেকে উঠে গিয়ে শুধু থাকে গ্রামে। পাল্কি, গরুর গাড়ি, নৌকা তারপর হয় রিকশা হয় বিয়ের বাহন। দুর্গম জনপদে পায়ে হেঁটেও বিয়ে করতে যায় পাত্র-পাত্রী। এসবের অনেক কিছুই পাল্টেছে। যেমন শহরে সাজানো গাড়িই বিয়ের প্রচলিত বাহন।  সামর্থ্য ভেদে এই বহরে যুক্ত হয়েছে হেলিকপ্টার।

পাল্কি ও ঘোড়ার গাড়ির ব্যবহার উঠে গেলেও ঢাকা শহরেই হঠাৎ কখনও দেখা যায় এমন আয়োজন। তবে বিয়ের জন্য সাজানো ঘোড়ার গাড়ি রাস্তায় দেখা গেলেও পাল্কির ব্যবহারটা বিয়ের অনুষ্ঠান স্থলে গাড়ি থেকে মঞ্চ পর্যন্তই সীমিত।

এই বিভাগের আরো খবর

ঝালকাঠির আটঘরে জমে উঠেছে দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে বড় নৌকারহাট

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: বর্ষা মৌসুমে ঝালকাঠি ও পিরোজপুর জেলার সীমান্তবর্তী আটঘরে জমে উঠেছে দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে বড় নৌকারহাট। স্থানীয়ভাবে...

গ্যাস বেলুনে হিলিয়ামের পরিবর্তে ব্যবহার হচ্ছে হাইড্রোজেন গ্যাস

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিপজ্জনক ও বিস্ফোরক হাইড্রোজেন গ্যাস দিয়ে বেলুন ফুলিয়ে উড়ানো হচ্ছে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে। নানা উৎসবে শিশুদের হাতে হাতে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is