ঢাকা, রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

2019-05-25

, ২০ রমজান ১৪৪০

হাসপাতাল যখন নিজেই রোগী

প্রকাশিত: ০৯:৪১ , ৩১ জানুয়ারী ২০১৯ আপডেট: ০৮:২০ , ৩১ জানুয়ারী ২০১৯

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: জনবল এবং ওষুধ সংকটসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল। কাগজে কলমে হাসপাতালটি ১০০ শয্যার হলেও এখানে বাস্তবে রয়েছে ৫০শয্যার সুবিধা। রোগ নির্ণয়ের বিভিন্ন যন্ত্রপাতি এখানে থাকলেও এর কোনটিরই সুফল পাচ্ছেনা রোগীরা। ফলে বিভিন্ন ক্লিনিক থেকে উচ্চমূল্যে রোগ নির্ণয় পরীক্ষা করাতে হয় রোগীদের।  

সরেজমিনে দেখা যায়, এই হাসপাতালে রোগ নির্ণয়ের জন্য রয়েছে ৩টি এক্স-রে মেশিন, ২টি আল্ট্রাসনোগ্রাফি মেশিন, ২টি ইসিজি মেশিনসহ বেশকিছু রোগ নির্ণয়ের যন্ত্র। এসব অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি দীর্ঘদিন থেকেই  অকেজো অবস্থায় পড়ে রয়েছে।

এছাড়া, হাসপাতালটিতে ৫০ জনের জায়গায় চিকিৎসক রয়েছে মাত্র ১৬জন। হাসপাতালে রোগীদের পাশাপাশি বর্হিবিভাগের রোগীদেরও চাপ সামলাতে হয় তাদের। ফলে প্রত্যাশিত চিকিৎসা পায়না রোগীরা।

তবে, এখানে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের অভিযোগ করে বলেন, হাসপাতালের বেশিরভাগ চিকিৎসক স্থানীয় ক্লিনিক ব্যবসার সাথে জড়িত থাকায় হাসপাতালের সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন তারা।  তাই বাধ্য হয়ে বাড়তি টাকা খরচ করে স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকে পরীক্ষা নীরিক্ষা করতে হচ্ছে।  এছাড়া, দালালদের দৌরাত্ম্য আর অপরিচ্ছন্নতার জন্য পরিবেশ অস্বাস্থ্যকর বলেও অভিযোগ রয়েছে রোগীদের।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শরীয়তপুর সিভিল সার্জন খলিলুর রহমান বৈশাখী অনলাইনকে জানান, জনবলের অভাবে দীর্ঘদিন ব্যবহার না করায় মূল্যবান এসব যন্ত্রপাতি অকেজো হয়ে পড়েছে। তবে, শিগগিরই জনবলের সংকটের বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

 

 

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is