ঢাকা, সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ৩ পৌষ ১৪২৫

2018-12-17

, ৮ রবিউস সানি ১৪৪০

মি টু আন্দোলন: যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে সতর্ক করলেন নারীরা

প্রকাশিত: ১০:৫৯ , ১৬ নভেম্বর ২০১৮ আপডেট: ১০:৫৯ , ১৬ নভেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিশ্বজুড়ে এখন চলছে #মি টু মুভমেন্টের ঝড়।  বর্তমানে সেই হাওয়া লেগেছে  বাংলাদেশেও। তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের  মেয়েরা ধীরে ধীরে প্রকাশ করতে শুরু করেছে তাদের যৌন নিপীড়নের কথা। শুক্রবার- ১৬ নভেম্বর দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রথমবারের মতো মানববন্ধন করে যৌন নিপীড়কদের  সতর্ক করলেন নারীরা।
মানববন্ধনে দাঁড়িয়ে  বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সভাপতি নাসিমুন আরা হক মিনু বলেন, ‘দীর্ঘদিন নিজেদের মধ্যে চেপে রাখা এই নিপীড়নের ঘটনা যারা সামনে এনেছেন, তাদের স্যালুট জানাই। আমরা তাদের পাশে দাড়ানোর জন্য এসেছি।’ এ আন্দোলন পুরুষদের বিরুদ্ধে নয়, অপরাধীদের বিরুদ্ধে, উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘সব পুরুষ অপরাধী না। অপরাধীরাই পুরুষ সমাজকে কলঙ্কিত করেছে।’
বাংলাদেশের ওমেন জার্নালিস্ট ফোরামের সভাপতি মমতাজ বিলকিস বলেন, ‘আমি স্বাগত জানাই সেই মেয়েদের, যারা সব লজ্জা-ভয় ভুলে দাঁড়িয়েছে এই #মি টু প্ল্যাটফর্মে। আমি সব সম্পাদকদের কাছে অনুরোধ করবো, তারা যেন একটি কলাম #মি টু'র জন্য রাখেন, যাতে মেয়েরা তাদের কথাগুলো ইচ্ছেমতো বলতে পারে এবং তা থেকে অন্যরা সচেতন হতে পারে।’ টেলিভিশন চ্যানেল নিউজ টুয়েন্টিফোরের জয়েন্ট নিউজ এডিটর আঙ্গুর নাহার মন্টি বলেন, ‘#মিটু একটি সামাজিক আন্দোলন, যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন। বর্তমানে ছেলেরাও মুখ খুলতে শুরু করেছে। যৌন নিপীড়ন শুধু নারীরা হয় তা না, ছেলেরাও হয়। আমরা ছোটবেলা থেকে মেয়ে শিশুটিকে সাবধান করি, কিন্তু ছেলে শিশুটিকে করি না। এজন্য তারা বেশি ঝুঁকিতে থাকে। আমি মনে করি, বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের এ আন্দোলনে থাকা উচিত।’

মানববন্ধনে ভিক্টিম হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাপ্তাহিক অপরাধ বিচিত্রার নারী সাংবাদিক নাদিরা দিলরুবা। তিনি বলেন, ‘যেদিন প্রথম #মি টু’র প্ল্যাটফর্ম দেখেছিলাম, সেদিন থেকে প্রতিটি পোস্ট ফলো করছিলাম। কিন্তু সেখানে কেউ নিকট আত্মীয়ের মাধ্যমে যৌন হয়রানির বিষয়ে বিস্তারিত বলেননি। সে হিসেবে আমিই বোধহয় প্রথম বলছি, নিকট আত্মীয় দ্বারা যৌন হয়রানি বিষয়টি। আজ থেকে তিন বছর আগে আমার জীবনে ঘটে যাওয়া বিষয়টি এবার সামনে নিয়ে আসলাম। আমি যার দ্বারা ভিক্টিমাইজড হয়েছি, সে আমার মায়ের চাচাতো ভাই জালাল উদ্দিন নাসির।’

ভিক্টিম মুসফিকা লাইজু জানান, ‘আমি ৩১ বছর ট্রমাটাইজড হয়েছিলাম। আমি কাগজে  শত শত  লিখেছি, কিন্তু কীভাবে প্রকাশ করবো, সেটা খুঁজে পাইনি। ভেবেছিলাম এই সত্য আর কখনও প্রকাশ পাবে না। কিন্তু ফেসবুকের কল্যাণে তা সম্ভব হয়েছে। আপনারা জানেন না, যদি একজন নারী তার জীবনের যৌন হয়রানির কথা সাদা কাগজে লিখে, তবে সেটা দিয়ে পুরো পৃথিবী ঢেকে দিতে পারবে। একজন মেয়ে শিশু বড় হওয়া পর্যন্ত কত অনাকাঙ্ক্ষিত স্পর্শের শিকার হয়, তা কখনও কল্পনাও করতে পারবেন না।’
বাংলা ট্রিবিউনের চিফ রিপোর্টার উদিসা ইসলাম বলেন,  ‘#মি টু আন্দোলনের সংহতি সমাবেশে আজ দাঁড়িয়েছি এই জন্য যে, আজ যারা মিটু'র কথা বলছেন, তাদের প্রতি আমরা যেমন সংহতি জানাই, তেমনি এতে যারা অভিযুক্ত হচ্ছেন, তাদের প্রতি আমার কিছু কথা আছে। এই আন্দোলনকে যদি আপনারা পুরুষতান্ত্রিক মানুষ হিসেবে গ্রহণ করতে না পারেন, তবে এই আন্দোলনকে নিয়ে হাস্যরস করার চেষ্টা করবেন না।’
তিনি বলেন, ‘এরই মধ্যে ডেইলি স্টার তাদের এক কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছে।  এটি একটি  ভালো উদ্যোগ। আমরা চাই, যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, তাদের প্রতিষ্ঠান ওইসব ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে স্বউদ্যোগে।’
মানববন্ধনে  উপস্থিত ছিলেন অনলাইন জার্নালিস্ট ফোরামের সহসভাপতি রোজী ফেরদৌস, চ্যানেল নাইনের সাইদা জোহরা, সাংবাদিক সাজেদা হক, নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের নাসিমা সোমা, নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক পারভীন সুলতানা,  সাংবাদিক ফাহমিদা আকতার,  রিতা নাহার, শাহনাজ শারমিন, ইয়াসমিন হাসি, রিফাত ফাতেমা, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শুকুর আলী শুভ, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার (বাসস) সাংবাদিক কবীর আহমেদ খান প্রমুখ।

এই বিভাগের আরো খবর

খুলনায় সাংবাদিকদের সাথে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের মতবিনিময়

খুলনা প্রতিনিধি: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে  খুলনায় সাংবাদিকদের সাথে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।...

৯ম ওয়েজ বোর্ড রোয়েদাদের সুপারিশ পর্যালোচনায় কমিটি গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদক: সংবাদকর্মীদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধির জন্য ‘নবম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ড, ২০১৮’র রোয়েদাদ এর সুপারিশ পর্যালোচনায় পাঁচ সদস্যের...

বৈশাখী টেলিভিশনের সাংবাদিক সুলতানা কাকনের মায়ের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: বৈশাখী টেলিভিশনের নিউজরুম এডিটর সুলতানা কাকনের মা হাছনা আহমেদ ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল¬াহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is