নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস

প্রকাশিত: ১০:০০, ০১ নভেম্বর ২০১৮

আপডেট: ১২:১০, ০১ নভেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: এবারের ভোট পরবে শীত মৌসুমে। রাজশাহী অঞ্চলে তখন ঠান্ডা জেকে বসবে। কিন্তু চিন্তায় উত্তাপ ছড়াবে ভোট। এখনও সেই নির্বাচনী উত্তেজনার জমজমাট আয়োজন দৃশ্যমান হয়নি এই বিভাগীয় নির্বাচনী আসনগুলোতে। আছে কিছু খন্ডচিত্র, যা মূলত ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের তৎপরতার কারনে। বিএনপি’র নির্বাচনী কর্মকান্ড এখনো মাঠে নয়, ঘরের ভেতর।

বিএনপি-জামায়াতের ঘাঁটি বলে পরিচিত সীমান্তবর্তী জেলা চাঁপাইনবাবগঞ্জের তিনটি আসনই এখন আওয়ামী লীগের দখলে। তবে আসছে নির্বাচনে যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে তার আভাস মিলছে এখনই। যদিও এখন পর্যন্ত শুধুমাত্র সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ দেখা মিললেও ভোটারদের মাঝে নির্বাচনী হওয়া লাগেনি খুব একটা।

নির্বাচন ঘনিয়ে এলেও এই জেলার তিনটি আসনের কোনটিতেই প্রচার-প্রচারনা জমেনি এখন অব্দি। ক্ষমতাসীন দলের এমপিরা ভোটের গণসংযোগ শুরু করেছে বিচ্ছিন্নভাবে। বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড উদ্বোধনের মাধ্যমে তারা জনগনের মন টানতে চাইছেন। দলের ভেতর আছে নানা ইস্যুতে মতানৈক্য। দলের মনোনয়ন প্রত্যাশার প্রতিযোগীতা নিয়েও আছে বিভাজন। বিএনপি’র ক্ষেত্রে বিষয়টি এখনো দৃশ্যমান নয়।
 
ভোটের মাঠেতো নয়ই কোনো আন্দোলনেও এই অঞ্চলের মাঠে নেই বিএনপি ও তার শরিকরা। কোন কোন নেতা দাবি করলেন নির্বাচনী প্রস্তুতির চলছে ঘরের ভেতর।

বিভাগীয় শহর রাজশাহীকে ঘিরে দুই বড় দলেরই পরিক্ষিত প্রবীন রাজনীতিক রয়েছে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়কে কেন্দ্র করে এখানে সাহিত্য সংস্কৃতিরও বিশেষ চর্চারও একটি ক্ষেত্র গড়ে উঠেছে। মাঠে ভোটের হাওয়া জোরেশোরে এখনও না লাগলেও নির্বাচন নিয়ে আলোচনা ও পর্যবেক্ষন দলীয় নেতাদের যেমন আছে, তেমনি আছে এই অঞ্চলের স্বনামখ্যাত পর্যবেক্ষকদেরও।

নওগা, নাটোর, পাবনা, সিরাজগঞ্জ ও জয়পুরহাটের মাঠে ভোটের এখন পর্যন্ত চিত্র খুব আলাদা কিছু নয়।

বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জন্মস্থান বগুড়া। যা এই অঞ্চলের বাণিজ্যের কেন্দ্র বিন্দুও। এখানেও এখনো প্রকাশ্যে কোনো নির্বাচনী তৎপরতায় নামেনি বিএনপি। কোন কথা বলতেও ভীত। বরং তাদের ঘাটিতে আওয়ামী লীগের ব্যাপক তৎপরতা।

এই অঞ্চলের তৃণমূলের নেতা কর্মী পর্যবেক্ষক ও ভোটারদের মতে এখনো নিরুত্তাপ থাকলেও সামনের সপ্তাহগুলোতে প্রকৃতিতে তাপমাত্রা কমার সাথে সাথে বাড়তে থাকবে ভোটের উত্তাপ।

 

এই বিভাগের আরো খবর

ক্লাবে ক্যাসিনো বসিয়ে লাভবান হাতে গোনা ক’জন

মাবুদ আজমী: ক্যাসিনোর কালিমা লাগার পর...

বিস্তারিত
দিলকুশা ক্লাব দখল করে ক্যাসিনো চালু করেন সাঈদ

মাবুদ আজমী: মতিঝিলের ক্লাব পাড়ায় অবৈধ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *