ঢাকা, রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-18

, ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

নওয়াজ শরিফের স্ত্রী আর নেই

প্রকাশিত: ০৭:২০ , ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০৭:২০ , ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডির আদিয়ালা জেলে বন্দি ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের স্ত্রী কুলসুম নওয়াজ আর নেই। মঙ্গলবার লন্ডনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন ক্যান্সার আক্রান্ত কুলসুম। নওয়াজ শরিফের ভাই ও পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) প্রধান শাহবাজ শরিফ তিনবারের সাবেক এই ফার্স্ট লেডির মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ব্যক্তিগত জীবনে স্বামী ছাড়াও চার সন্তান; হাসান নওয়াজ, হুসাইন নওয়াজ, মরিয়ম নওয়াজ ও আসমা নওয়াজকে রেখে গেছেন তিনি। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম জিও নিউজ বলছে, শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকায় মঙ্গলবার সকালের দিকে কুলসুম নওয়াজকে লন্ডনের হার্লি স্ট্রিট ক্লিনিকে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়। সোমবার রাত থেকে তার অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে; এসময় তার ফুসফুসে নতুন করে সমস্যা দেখা দেয়।
গত বছরের আগস্টে ক্যান্সারের প্রাথমিক স্তর লিম্ফোমায় আক্রান্ত কুলসুমকে চিকিৎসার জন্য লন্ডনে নেয়া হয়। সেখানে বেশ কয়েকবার তার অস্ত্রপচার সম্পন্ন হয়। কমপক্ষে পাঁচবার কেমোথেরাপি সেশন পার করেন তিনি।

চলতি বছরের জুনে একবার কার্ডিয়াকে আক্রান্ত হওয়ার পর তাকে ভেন্টিলেটরে নেয়া হয়। গত ১২ জুলাই তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি ঘটছে বলে পরিবারের সদস্যরা জানান। পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ ও তার মেয়ে মরিয়মকে দুর্নীতির দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে ৬ জুলাই রায় ঘোষণা করে দেশটির দুর্নীতি-বিরোধী আদালত।

রায় ঘোষণার পর ১৩ জুলাই লন্ডন থেকে দেশে ফিরে গ্রেফতার হন তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও নওয়াজ এবং তার মেয়ে মরিয়ম। বর্তমানে রাওয়ালপিন্ডির আদিয়ালা জেলে বন্দি আছেন তারা। গত বছর দেশটির সুপ্রিম কোর্ট নওয়াজকে দুর্নীতির দায়ে প্রধানমন্ত্রী পদের অযোগ্য ঘোষণা করে রায় দেয়ার পর লাহোরের এনএ-১২০ আসনের উপ-নির্বাচনে অংশ নিয়ে জয়ী হন কুলসুম নওয়াজ। তবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর আগে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটায় চিকিৎসার জন্য লন্ডনে যান তিনি। মায়ের পক্ষে লাহোরের ওই আসনে নির্বাচনী প্রচারণা চালান মরিয়ম নওয়াজ। শারীরিক অসুস্থতার কারণে আর দেশে ফিরতে না পারলেও আনুষ্ঠানিকভাবে শপথ নেন তিনি।

১৯৯০-১৯৯৩, ১৯৯৭-১৯৯৯ ও ২০১৩ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত তিনবার ফার্স্ট লেডির দায়িত্ব পালন করেন কুলসুন নওয়াজ। ১৯৫০ সালে লাহোরের এক কাশ্মিরি পরিবারে জন্ম সদ্য প্রয়াত এই ফার্স্ট লেডির। পরে লাহোর ইসলামিয়া কলেজ ও ফর্মান ক্রিশ্চিয়ান কলেজ থেকে স্নাতক শেষ করেন তিনি। পরে ১৯৭০ সালে পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উর্দূ বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের বছর ১৯৭১ সালে নওয়াজ শরিফের সঙ্গে বৈবাহিক বন্ধনে আবদ্ধ হন কুলসুম নওয়াজ। দেশটির সাবেক স্বৈরশাসক পারভেজ মুশাররফ সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে নওয়াজ শরিফকে ক্ষমতাচ্যুত করে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেয়ার পর ১৯৯৯ থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন সাবেক এই ফার্স্ট লেডি।

নওয়াজ শরিফকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর স্বৈরশাসক মুশাররফ গৃহবন্দি করে রাখে মরিয়ম নওয়াজ ও কুলসুম নওয়াজকে।

এই বিভাগের আরো খবর

সৌদির কাছে অস্ত্র বিক্রি স্থগিতের বিল মার্কিন সিনেটে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যা, মানবাধিকার কর্মীদের আটক ও ইয়েমেনে নির্বিচার বোমা হামলার প্রতিবাদে সৌদি আরবের কাছে...

ক্রাউন প্রিন্সের নির্দেশেই খাশোগিকে হত্যা- ধারণা সিআইএ'র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের নির্দেশেই সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যা করা হয়েছে বলে মনে করে মার্কিন গোয়েন্দা...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is