ঢাকা, রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-18

, ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

রাজধানীতে বন্ধ হচ্ছে না গণপরিহনের নৈরাজ্য

প্রকাশিত: ০৯:৩০ , ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ আপডেট: ১১:৪০ , ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : কোন উদ্যোগেই বন্ধ হচ্ছে না রাজধানীর গণপরিবহনে নৈরাজ্য। আইনের পরোয়া করে না চালক আর সহকারীরা। মানা হয় না নির্ধারিত ভাড়ার তালিকাও। সিটিং সার্ভিস তুলে দেয়া হলেও এখনো চলছে এই সেবার নামে ইচ্ছেমতো ভাড়া আদায়। বাস মালিকদের কাছে খোদ বিআরটিএ জিম্মি বলে জানান এই প্রতিষ্ঠানের সচিব।

বাসের গায়ে সিটিং সার্ভিস লেখা থাকলেও, ভেতরের ছবি ভিন্ন। গাদাগাদি যাত্রী ভরে রীতিমতো লোকাল সার্ভিসকেও যেন হার মানায়।

তবে পরিবহন শ্রমিকরা সিটিং সার্ভিসকে লোকাল বাসে পরিণত করার অভিযোগ আনলেন যাত্রীদের বিরুদ্ধেই।

২০১৫ সালের নীতিমালায় প্রথম দুই কিলোমিটারের জন্য বাস ভাড়া সাত টাকা আর মিনিবাসের জন্য পাঁচ টাকা নির্ধারণ করা হয়। এর পর প্রতি কিলোমিটারে বাসে এক টাকা সত্তর পয়সা আর মিনিবাসে এক টাকা ষাট পয়সা নির্ধারণ করা হয়। যাত্রীদের অভিযোগ, সরকারের বেঁধে দেয়া ভাড়া কখনই মানা হয় না। আদায় করা হয় দ্বিগুণ বা তারও বেশি।

মিরপুরের পল্লবী থেকে শাহবাগ পর্যন্ত মিনি বাসের ভাড়া ১৮ টাকা। অথচ আদায় করা হচ্ছে ২২ থেকে ২৫ টাকা। সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষও জানে বাড়তি ভাড়া আদায়ের কথা। কিন্তু তারাও যেন অসহায় পরিবহন ব্যবসায়ীদের কাছে।

গণপরিবহণের এই অরাজকতা থেকে নগরবাসীর আদৌ মুক্তি মিলবে কিনা সে নিশ্চয়তা দিতে পারছে না বিআরটিএ।

 

এই বিভাগের আরো খবর

কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া রুটে চারঘণ্টা পর ফেরি চলাচল শুরু

মাদারীপুর প্রতিনিধি: ঘন কুয়াশার কারণে কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া রুটে চার ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। শনিবার- ৪ নভেম্বর দিবাগত রাত...

ময়লা ফেলার ট্রাকে চড়ে যাত্রা !

নিজস্ব প্রতিবেদক : শ্রমিকেদের ধর্মঘটে রোববার রাজধানীতে গণপরিবহণের সংকট দেখা দেয়ায় নিরুপায় যাত্রীদের সিটি কর্পোারেশনের ময়লা ফেলার ট্রাকে...

পরিবহন ধর্মঘটে ভোগান্তি চরমে

নিজস্ব প্রতিবেদক : সড়ক পরিবহন আইন সংস্কারসহ ৮ দফা দাবিতে সকাল ৬টা থেকে সারাদেশে চলছে ৪৮ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘট। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is