ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-25

, ১৪ মহাররম ১৪৪০

রাজধানীতে বন্ধ হচ্ছে না গণপরিহনের নৈরাজ্য

প্রকাশিত: ০৯:৩০ , ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ আপডেট: ১১:৪০ , ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : কোন উদ্যোগেই বন্ধ হচ্ছে না রাজধানীর গণপরিবহনে নৈরাজ্য। আইনের পরোয়া করে না চালক আর সহকারীরা। মানা হয় না নির্ধারিত ভাড়ার তালিকাও। সিটিং সার্ভিস তুলে দেয়া হলেও এখনো চলছে এই সেবার নামে ইচ্ছেমতো ভাড়া আদায়। বাস মালিকদের কাছে খোদ বিআরটিএ জিম্মি বলে জানান এই প্রতিষ্ঠানের সচিব।

বাসের গায়ে সিটিং সার্ভিস লেখা থাকলেও, ভেতরের ছবি ভিন্ন। গাদাগাদি যাত্রী ভরে রীতিমতো লোকাল সার্ভিসকেও যেন হার মানায়।

তবে পরিবহন শ্রমিকরা সিটিং সার্ভিসকে লোকাল বাসে পরিণত করার অভিযোগ আনলেন যাত্রীদের বিরুদ্ধেই।

২০১৫ সালের নীতিমালায় প্রথম দুই কিলোমিটারের জন্য বাস ভাড়া সাত টাকা আর মিনিবাসের জন্য পাঁচ টাকা নির্ধারণ করা হয়। এর পর প্রতি কিলোমিটারে বাসে এক টাকা সত্তর পয়সা আর মিনিবাসে এক টাকা ষাট পয়সা নির্ধারণ করা হয়। যাত্রীদের অভিযোগ, সরকারের বেঁধে দেয়া ভাড়া কখনই মানা হয় না। আদায় করা হয় দ্বিগুণ বা তারও বেশি।

মিরপুরের পল্লবী থেকে শাহবাগ পর্যন্ত মিনি বাসের ভাড়া ১৮ টাকা। অথচ আদায় করা হচ্ছে ২২ থেকে ২৫ টাকা। সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষও জানে বাড়তি ভাড়া আদায়ের কথা। কিন্তু তারাও যেন অসহায় পরিবহন ব্যবসায়ীদের কাছে।

গণপরিবহণের এই অরাজকতা থেকে নগরবাসীর আদৌ মুক্তি মিলবে কিনা সে নিশ্চয়তা দিতে পারছে না বিআরটিএ।

 

এই বিভাগের আরো খবর

২৬ দখলদারের কাছে জিম্মি ডিএনডি সেচ প্রকল্প এলাকা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জ সদরের-ডিএনডি সেচ প্রকল্প এলাকায় ২৬ দখলদারদের হাতে জিম্মি প্রায় ২২ লাখ মানুষ। অবৈধ এসব স্থাপনার জন্য পানি...

দুই ঘাটে ফেরি চলাচল ব্যহত

ডেস্ক প্রতিবেদন : পদ্মায় পানি বৃদ্ধি ও তীব্র স্রোতের কারণে শিমুলিয়া কাঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রী...

বিভিন্নস্থানে নদী ভাঙন অব্যাহত

ডেস্ক প্রতিবেদন : উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও বৃষ্টি অব্যাহত থাকায় বেড়েই চলেছে লালমনিরহাট জেলার তিস্তা ও ধরলা নদীর ভাঙন। কোনভাবেই ঠেকানো...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is