ঢাকা, শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১ ফাল্গুন ১৪২৫

2019-02-23

, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪০

২০ হাজার মেগাওয়াটের সক্ষমতা অর্জন, আলোক উৎসব আজ

প্রকাশিত: ১০:০৪ , ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ আপডেট: ১০:০৪ , ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিদ্যুৎ উৎপাদনের ২০ হাজার মেগাওয়াটের সক্ষমতা অর্জন করেছে বাংলাদেশ। এই অর্জনকে স্মরণীয় করে রাখতে আজ শুক্রবার- ৭ সেপ্টেম্বর বর্ণিল আলোক উৎসবের আয়োজন করেছে সরকার। আতশবাজি পুড়িয়ে রাজধানীর মিরপুর, বসুন্ধরা, আর হাতিরঝিলে উদ্বোধন করা হবে এই আলোক উৎসব। তবে মিরপুরের বদলে সদরঘাটে আলোক উৎসব হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
উল্লেখ্য, এর আগে বিদ্যুৎ উৎপাদনের সক্ষমতা ১৫ হাজার মেগাওয়াট অর্জন উপলক্ষে সরকার ২০১৬ সালে আলোক উৎসবের আয়োজন করেছিল। সেই হিসেবে গেল দুই বছরে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদনের সক্ষমতা বেড়েছে ৫ হাজার মেগাওয়াট।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেন, বর্তমান সরকার ২০০৯ সালে প্রথমবার ক্ষমতা গ্রহণের সময় বিদ্যুতের উৎপাদন ক্ষমতা ছিল চার হাজার ৯৪২ মেগাওয়াট, যা বর্তমানে ২০ হাজার মেগাওয়াটে উন্নীত হয়েছে। মাত্র ১০ বছরে এই অগ্রগতি নিঃসন্দেহে একটি বিরল অর্জন। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহে আলোক উৎসব উদযাপনের মাধ্যমে এই অর্জনকে স্মরণীয় করে রাখা হবে।

বিদ্যুৎ সচিব ড. আহমদ কায়কাউস জানান, দেশে মোট ১২৪টি বিদ্যুৎকেন্দ্র রয়েছে। এগুলোর সম্মিলিত উৎপাদন ক্ষমতা ১৭ হাজার ৪৩ মেগাওয়াট। এর সঙ্গে ক্যাপটিভ পাওয়ার থেকে ২ হাজার ৮০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাচ্ছে। নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে উৎপাদন হচ্ছে আরও ২৯০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ। সব মিলিয়ে বিদ্যুতের মোট উৎপাদন ক্ষমতা দাঁড়িয়েছে ২০ হাজার ১৩৩ মেগাওয়াটে। এছাড়া আগামী ১০ সেপ্টেম্বর ভারত থেকে আসছে আরও ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ।

এদিকে, বৃহস্পতিবার- ৬ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহ- ২০১৮। ‘অনির্বাণ আগামী’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বসুন্ধরা আর্ন্তজাতিক কনভেশন সিটিতে এই সপ্তাহের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী ৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে এই আয়োজন।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে জনসচেতনতা তৈরির জন্য তিন দিন বিভিন্ন আয়োজনে এই সপ্তাহ পালন করা হবে। প্রতিবারের মতো এবার বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহে রয়েছে মেলা, ক্যাম্প ও সেমিনার। মেলায় বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী যন্ত্রপাতির ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে বেশি। সরকারি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি ৭০টিরও বেশি বেসরকারি দেশি ও বিদেশি প্রতিষ্ঠান এ মেলায় অংশ নেবে।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহে তিন দিনে থাকছে চারটি সেমিনার। প্রথম দিন বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘ফিউচার প্রসপেক্টাস অব রিজিওনাল কানেকটিভিটি’ শীর্ষক সেমিনার। দ্বিতীয় দিন শুক্রবার থাকছে ‘পাওয়ার অ্যান্ড এনার্জি: ফান্ডিং দ্য ওয়ে টু সাসটেইনেবল গ্রোথ’ ও ‘নিউ টেকনোলজিস: ইনোভেশনস ইন পাওয়ার অ্যান্ড এনার্জি’ শীর্ষক দুইটি এবং শেষ দিন অর্থাৎ ৮ সেপ্টেম্বর ‘এনার্জি প্রাইসিং’ নিয়ে আরও একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।

এই বিভাগের আরো খবর

বিশ্বের সবচেয়ে যানজটের শহর

ডেস্ক প্রতিবেদন: বিশ্বের সবচেয়ে যানজটের শহর এখন ঢাকা। এর পরেই রয়েছে ভারতের কলকাতা শহর। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে নয়াদিল্লি। অনলাইনভিত্তিক...

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে সব দলের অংশ না নেয়া হতাশাজনক: সিইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন, বড় রাজনৈতিক দলগুলোর স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশ না নেয়া হতাশাজনক। নির্বাচন কমিশন...

রাজধানীতে হঠাৎ বৃষ্টি

নিজস্ব প্রতিবেদক: পশ্চিমা লঘুচাপের প্রভাবে রোববার- ১৭ ফেব্রুয়ারি ভোরে রাজধানীতে মুষলধারে বৃষ্টি হয়েছে। ভোর ছয়টা থেকেই আকাশ ভারী মেঘে ঢেকে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is