ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-21

, ১০ মহাররম ১৪৪০

নায়ক সালমান শাহ’র মৃত্যুবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত: ০৯:৫১ , ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০৯:৫১ , ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলা চলচিত্রের সাড়া জাগানো অভিনেতা সালমান শাহ’র, মৃত্যুর ২২ বছর পরও ভক্ত হৃদয়ে যার অবস্থান অনন্য। ক্ষণজন্মা এই অভিনেতা তার অভিনয় শৈলী, ফ্যাশন সচেতণতা আর বহুমুখী গুণে এখনো সালমান শাহ তরুণ ও সহশিল্পীদের কাছে অনুকরণী। ১৯৯৬ সালের এই দিনে রাজধানীর ইস্কাটনের বাসায় ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায় তার মরদেহ।

গান (ভালো আছি ভালো থেকো) এলেন, দেখলেন, জয় করলেন। বাংলা চলচ্চিত্রে সালমান শাহ’র মতো রাতারাতি কিংবদন্তী বনে যাওয়া কিংবা ভক্তের প্রাণের খুব কাছে যাবার শক্তি ক’জনেরইবা ছিলো ! যতদিন বেঁচে ছিলেন তাঁর কীর্তি আর অবদানের সলতে কখনো নিভু নিভু জ্বলেনি, বরং উজ্জল আলোক শিখার মতোই নব্বই দশকের শুরুতে আবির্ভাব ঢাকাই চলচ্চিত্রে।

শুরুটা ১৯৯৩ সালে, কেয়ামত থেকে কেয়ামত ছবি দিয়ে, প্রথম ছবিতেই বাজিমাত। হাতে খড়িতেই যখন জয়জয়কার, তখন তার পেছনে একটার পর একটা ছবির ফরমায়েশ চলচ্চিত্রকারদের। মাত্র সাড়ে তিন বছরের ক্যারিয়ারে তাঁর অভিনীত ছবির সংখ্যা দাঁড়ায় ২৭টিতে।

রূপালী পর্দায় রীতিমতো দাবড়ে বেড়াচ্ছিলেন সালমান। কিন্তু, হঠাৎই কালো ছায়ায় সাময়িক ঢাকা পড়লো বাংলা চলচ্চিত্র। ১৯৯৬ সালের ৬ই সেপ্টেম্বর কোটি ভক্ত-অনুরাগীকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান সালমান শাহ। তাঁকে হারাবার হাহাকার এখনও সহকর্মী-ভক্ত-শুভানুধ্যায়ীদের বুকে।

সালমান শাহ’র মৃত্যু নিয়ে রহস্য কাটেনি এখনো। তবে চলে যাওয়া তাকে ভোলায়নি, বরং বাংলা চলচ্চিত্রের এক সময়ের এই যুবরাজ এখনও দিব্যি বেঁচে ভক্ত হৃদয়ে। কি অভিনয়, কি সংলাপ, কি নাচ- সবখানেই হয়ে আছেন তরুণ প্রজন্মের আইকন।

 

এই বিভাগের আরো খবর

চাঁদে যাচ্ছেন জাপানি ধনকুবের

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক: চাঁদে ভ্রমণের জন্য স্পেসএক্স প্রথম যাত্রীর নাম ঘোষণা করেছে। আর তিনি হলেন জাপানি ধনকুবের ইয়াসাকু মাইজাওয়া।...

দিল্লীতে নিজের মোমের মূর্তি দেখে বিস্মিত সানি লিওন

বিনোদন ডেস্ক: সানি লিওনের সঙ্গে সেলফি তোলার সুযোগ হলো তার ভক্তদের। অনেক ভক্তই তার সাক্ষাৎ পাওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে থাকেন। সাক্ষাৎ করে একটা...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is