ঢাকা, রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-18

, ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

দারুচিনির যত গুণ

প্রকাশিত: ০৯:৫৮ , ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০৯:৫৮ , ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ডেস্ক প্রতিবেদন: দারুচিনি সবচেয়ে বেশি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ ভেষজ। এটি সাধারণত মশলা হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। দারুচিনিতে রক্তের শর্করার রোধকসহ রয়েছে ঔষধি গুণাবলী। যা প্রদাহ কমাতে এবং স্নায়ুবিক শক্তি বৃদ্ধি করে। শুধু রান্নায় নয়, শরীর ও ত্বক উভয়ের জন্যই দারুচিনির ব্যবহার করা যায়। এর রয়েছে অনেক উপকারিতা। জেনে নেই দারুচিনির এমন কিছু উপকারিতা।

১. জয়েন্টের ব্যথা কমানোর ঔষধ হিসাবে ব্যবহার করতে পারে দারুচিনি। উষ্ণ গরম পানির মধ্যে এক চামচ মধু আর দারুচিনি গুড়া ভালভাবে মিশিয়ে নিন। এরপর শরীরের ব্যথা স্থানে আস্তে আস্তে মালিশ করুন। ২-৩ দিন ভালভাবে মালিশ করুন। কিছুদিন পর দেখবেন ব্যথা কমে যাবে।  

২. দারুচিনি পেটের জন্য খুবই উপকারি। এটি অ্যাসিডিটির সমস্যা দূর করে ও পেটের ব্যথা উপশম করে। পেট পরিষ্কার করতে রাতে ঘুমানোর আগে দারুচিনির সঙ্গে হরতকির গুঁড়া মিশিয়ে খেলে উপকার পাওয়া যায়। এছাড়া, মধুর সাথে দারুচিনি মিশিয়ে খেলে এসিডিটি ভালো হয়ে যায়।

৩. প্রতিদিন আধা চা চামচ দারুচিনির গুড়া রক্তে খারাপ কোলস্টেরল এর মাত্রা কমায়। রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে এবং টাইপ-২ ডায়াবেটিসের রোগীর জন্য খুবই উপকারি।

৪. ছত্রাক ঘটিত ইফেকশন প্রতিরোধ করতে দারুচিনির গুণাবলী চমৎকার ভাবে কাজ করে। হৃদরোগীদের জন্যেও দারুচিনি খুব উপকারি। এটি রক্ত চলাচল স্বাভাবিক রাখে।

৫. দারুচিনি মরন ব্যাধি লিম্ফোসাইটিক লিউকোমিয়ার বিস্তার রোধ করে। রক্ত জমাট না বাঁধার অসুখ হিমোফিলিয়া প্রতিরোধ করতে দারুচিনি বিশেষ ভূমিকা রাখে।

৬. বাতের ব্যথা ও হাড়ের ব্যথায় আধা চামচ দারুচিনির গুড়া এক চামচ মধুর সাথে মিশিয়ে খেলে ব্যথা দূর হয়। তাছাড়া, দারুচিনি মিশ্রিত সরিষার তেল গায়ে মালিশ করলে ব্যথা ভালো হয়।

৭. ঠাণ্ডায় গলা ব্যথা বা খুশখুশে কাশিতে মধু চায়ের সাথে দারুচিনি মেশালে আরাম পাওয়া যায়।

৮. ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধিতে দারুচিনি, দূর্বাঘাস ও হলুদ সমপরিমাণে বেটে মিশিয়ে ত্বকে লাগালে ভালো। তৈলাক্ত ত্বকে ব্রন রোধ করতে দারুচিনি উপকারি।

৯. নিয়মিত দারুচিনি খেলে স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি পায়।

১০. আর্থ্রাইটিসের সমস্যায় যারা ভুগছেন তারা এক কাপ গরম পানির মধ্যে দু চামচ মধু আর দারচিনি গুড়ো মিশিয়ে সকাল সন্ধ্যা খেতে পারেন।

 

এই বিভাগের আরো খবর

ডায়াবেটিকসের ঝুঁকি কমে কফি পানে

ডেস্ক প্রতিবেদন: প্রতিদিন তিন-চার কাপ কফি পানে ঝুঁকি কমে ডায়াবেটিসের। ক্যাফেইনবিহীন কফি পান করলেও একই ফল পাওয়া যাবে। নতুন এক গবেষণায় এ তথ্য...

যেসব খাবারে মন মেজাজ ভালো থাকবে

ডেস্ক প্রতিবেদন: প্রায় প্রতিদিনই আমাদের জীবনে এমন কিছু হয় যাতে কিছুটা সময় মন কিংবা মেজাজ খারাপ থাকে। এতে করে ক্ষতিটা হয় কেবল নিজেরই, এমন সময়...

ব্রণ তাড়াতে পেঁয়াজের রস

ডেস্ক প্রতিবেদন:  পেঁয়াজের নানা গুণাগুণের কথা কম বেশি সবারই জানা। তবে ব্রণের সমস্যা দূর করতে পেঁয়াজের কার্যকারিতা সম্পর্কে অনেকেই জানেন...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is