ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-24

, ১৩ মহাররম ১৪৪০

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চলছে হালকা যানবাহন

প্রকাশিত: ১০:১৬ , ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০৮:০৮ , ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কুমিল্লা প্রতিনিধি: নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চলছে লেগুনা ও মারুতিসহ বেশ কয়েকরকম হালকা যানবাহন। এদের নেই কোন বৈধ কাগজপত্র। নেই চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্সও। ফিটনেসবিহীন এসব যানবাহন ও অদক্ষ চালকের কারণে প্রায়ই প্রায়ই মহাসড়কে ঘটছে দুর্ঘটনা। প্রাণহানির পাশাপাশি পঙ্গুত্বের শিকার হচ্ছেন অনেকে। এসব যানবাহন বন্ধে প্রশাসন ও বিআরটিএ বিভিন্ন উদ্যোগ নিলেও তা কাজে আসছে না। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জেল-জরিমানার পরও কমছেনা অবৈধ এইসব যানবাহনের দৌরাত্ম্য।
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কুমিল্লার একশ পাঁচ কিলোমিটার অংশে অবাধেই চলছে অবৈধ যানবাহন। লেগুনা ও মারুতিসহ নানা নামের এসব হালকা যানবাহনের নেই আইনি বৈধতা। কিন্তু সদর্পেই দাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে সড়ক-মহাসড়কে।
এসব যানবাহনের অধিকাংশেরই নেই রোড পারমিট। ড্রাইভিং লাইসেন্স বিহীন চালকদের হাতেও তুলে দেয়া হচ্ছে এসব গাড়ি। ফলে সড়ক-মহাসড়ক হয়ে উঠছে ঝুঁকিপূর্ণ। প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানী। দুর্ঘটনায় প্রাণে বেঁচে গেলেও স্থায়ী পঙ্গুত্বের শিকার হচ্ছেন অনেকেই।
এসব যানবাহনের দৌরাত্ম্য ঠেকাতে প্রশাসনের উদ্যোগ যে কাজে লাগছে না, তা স্বীকার করলেন খোদ কর্মকর্তারাই। তারা জানালেন, বিভিন্ন সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জেল-জরিমানা করা হচ্ছে। কিন্তু এসব যানবাহন চলাচল বন্ধ করা যাচ্ছে না।  
বিআরটিএ’র কর্মকর্তারা জানালেন চমকে উঠার মতো তথ্য। মহাসড়কে চলাচল করা এসব হালকা যানবাহনের নব্বুইভাগেরই নেই অনুমোদন। বিভিন্ন জেলা থেকে মহাসড়কে আসছে এসব গাড়ি। জরিমানা ও ডাম্পিং করেও ঠেকানো যাচ্ছে না চলাচল।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মহাসড়কে অবৈধ এসব যানচলাচল বন্ধ করা না গেলে সড়ক দুর্ঘটনা কখনো কমবে না। তাই এদের ঠেকাতে প্রশাসনসহ আইনশৃংঙ্খলা বাহিনীকে আরো কঠোর হওয়ার কোন বিকল্প নেই।

 

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is