ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-16

, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

ঈদযাত্রায় ২৫৯ জনের মৃত্যু: যাত্রীকল্যাণের প্রতিবেদন

প্রকাশিত: ০২:৪০ , ৩১ আগস্ট ২০১৮ আপডেট: ০৪:২৪ , ৩১ আগস্ট ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঈদযাত্রার ১৩ দিনে সারাদেশে ১৩৭টি সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হন ২৫৯ জন। ১৬ থেকে ২৮ আগস্ট এসব দূর্ঘটনায় আহত হন আরো ৯৬০ জন। বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, ঈদুল ফিতরের তুলনায় ঈদুল আযহায় দূর্ঘটনা ১৩ দশমিক ৫ শতাংশ বেড়েছে। আইন প্রয়োগে জবাবদীহিতার অভাব, সড়কের নির্মাণ ত্র“টি এবং নীতিনির্ধারকদের হাতে মালিক শ্রমিক সংগঠনগুলো জিম্মি থাকাকে দায়ি করেন বিশেষজ্ঞরা।

কোরবানির ঈদে ঘরমুখো মানুষের ঈদ যাত্রায় ১৩ দিনে সারাদেশের সড়ক দূর্ঘটনার চিত্র তুলে ধরতে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি।

সমিতির প্রতিবেদনে উঠে আসে, ১৩ দিনে দেশের আঞ্চলিক এবং জাতীয় মহাসড়কে ১২ জন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য, ৪ চিকিৎসক, ২ সাংবাদিক, ২০ শিক্ষার্থী, ৪২ জন চালক হেলপার, ৫৯ নারী, ৩৪ শিশু ও ৮ জন রাজনৈতিক নেতা-কর্মীর রাস্তায় প্রাণ হারান।

প্রতিবেদন নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন বিশেষজ্ঞরা। সড়ক দূর্ঘটনার এই লাগামহীন অবস্থার জন্য  সড়ক নিরাপত্তা আইনের দূর্বলতাকে দায়ি করেন তারা।

আর সরকারের নানামূর্খী পদক্ষেপের পরও সড়ক দূর্ঘটনা নিয়ন্ত্রনে না আসার জন্য বিআরটিএ’র কার্যক্রমে দায়সারা ভাব, মালিক শ্রমিকদের সুবিধাজনক আইনের প্রনয়নকে দায়ি করেন।

এছাড়া, যানবাহনের ফিটনেস, চালকের লাইসেন্স প্রদানেও দূর্বলতা কথাও জানান বিআরটিএর সাবেক এই চেয়ারম্যান।

প্রতিটি দুর্ঘটনার পর তদন্ত প্রতিবেদন জনসমক্ষে প্রকাশ করা, রাস্তা নির্মানের ত্র“টি, প্রতিটি মহাসড়কে স্বল্পগতির যানবাহনের জন্য পৃথক লেনসহ বেশ কয়েকটি সুপারিশ সংবাদ সম্মেলন তুলে ধরেন বক্তারা।

 

 

 

এই বিভাগের আরো খবর

তিন জেলায় সড়কে প্রাণ গেলো ৫ জনের

ডেস্ক প্রতিবেদন : বরিশালের বাবুগঞ্জে কয়লাবাহী ট্রাকের সাথে আটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে অটোচালকসহ ৩ যাত্রী নিহত হয়েছে। গত রাতে উপজেলার...

রাজধানীতে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, দুইজনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর আদাবরে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের সময় গাড়িচাপায় দুই কিশোরের মৃত্যু ঘটেছে। নবোদয় হাউজিংয়ে সকালে আরিফ (১৫)...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is