ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-23

, ১২ মহাররম ১৪৪০

অতিরিক্ত মাংস খেলে যা হতে পারে

প্রকাশিত: ০৫:৩৯ , ২৮ আগস্ট ২০১৮ আপডেট: ০৫:৩৯ , ২৮ আগস্ট ২০১৮

ডেস্ক প্রতিবেদন: কোরবানির ঈদ শেষ হলেও কিন্তু মাংস খাওয়া শেষ হয়নি।  কিন্তু খেয়াল রাখতে হবে এটি উপকারের পাশাপাশি কী ধরনের ক্ষতিকর প্রভাব ফেলছে। জেনে নিন অতিরিক্ত মাংস খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা:

মাংসের পুষ্টিগুণ:
লাল মাংস যে শুধু ক্ষতিকর তা নয়; এতে আছে প্রচুর পরিমাণ প্রোটিন, ভিটামিন-বি কমপ্লেক্স, আয়রণ, জিংক- যা আমাদের শরীরের জন্য অনেক উপকারি।

মাংস খাওয়ার নিয়ম ও পরিমাণ:
একদিনে ৮৫গ্রাম লাল মাংস খাওয়া যেতে পারে। সেই সঙ্গে সঙ্গে পর্যাপ্ত সালাদ ও সবজি রাখতে হবে। এটি হজম প্রক্রিয়াকে সহজ করবে। লাল মাংসে ফাইবার বা আঁশের পরিমাণ কম থাকে বলে হজমে সমস্যা হয়। পর্যাপ্ত পানি খেতে হবে।

লাল মাংস খাওয়ার ফলে স্বাস্থ্য ঝুঁকি:
অতিরিক্ত মাংস খাওয়ার ফলে ক্যানসার হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি বেড়ে যায়। পাশাপাশি ফুসফুস ক্যানসার, খাদ্যনালির ক্যানসার, মলাশয়ে ক্যানসার, লিভার ক্যানসার এমনকি অগ্নাশয়ে ক্যানসার হতে পারে। এছাড়া, অতিরিক্ত মাংস খাওয়ার ফলে রক্তচাপ বাড়তে পারে, স্ট্রোক, হার্ট ফেইলও হয়ে থাকে। বিশেষ করে ৪৫ থেকে ৬৫ বছর বয়সের মধ্যে নিয়মিত মাংস খাওয়ার ফলে হৃৎপিণ্ডের রোগ হওয়ার ঝুঁকি ৩ গুণ বেড়ে যায়।

প্রক্রিয়াজাত করা মাংস খাওয়ার ঝুঁকি:
প্রক্রিয়াজাত করা লাল মাংস যেমন- কাবাব, সসেজ, বার্গার প্যাটি, বিফ বল ইত্যাদি খেলে হৃৎপিণ্ডে রোগ, কোলোরেক্টল ক্যানসার এবং টাইপ ২ ডায়াবেটিস হওয়ার সম্ভাবনা কয়েকগুণ বেড়ে যায়।

 

 

এই বিভাগের আরো খবর

মানুষের রক্তে আছে হলুদ স্বর্ণ 

ডেস্ক প্রতিবেদন: রক্ত মানুষের শরীরে অক্সিজেন বহন করে। রক্তে আছে আয়রন, ক্রোমিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, জিঙ্ক, লেড ইত্যাদি। তবে, অবাক করা ব্যাপার...

প্রসাধন সামগ্রীতে ক্ষতিকর প্লাস্টিক কণা, ঝুঁকিতে মানবদেহ ও প্রকৃতি

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে বিভিন্ন ধরনের প্রসাধন সামগ্রীতে ক্ষতিকর মাইক্রোবিডস বা প্লাস্টিক-কণা পেয়েছেন গবেষকরা। ৮ ধরনের ১০৪টি প্রসাধনী...

বাচ্চাকে চা দিচ্ছেন? 

ডেস্ক প্রতিবেদন:  বাড়িতে পরিবারের লোকজনকে দেখেই বাচ্চারাও চা পান করতে বায়না ধরে। এতে অনেক সময় বাধ্য হয়েই বাচ্চাদের চা দিতে হয়। কিন্তু এই...

জটিল অসুখ সারায় কালমেঘ

ডেস্ক প্রতিবেদন: কাজের চাপে কিংবা বিভিন্ন ব্যস্ততার কারণে আমরা সঠিকভাবে শরীরের যত্ন নিতে পারিনা। অনিয়মিত খাবার দাবার, ঘুমের অভাব,...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is