ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯, ৫ মাঘ ১৪২৫

2019-01-19

, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০

পঞ্চাশ উর্ধ্ব নারীও গর্ভধারণ করতে পারবে

প্রকাশিত: ০১:৩২ , ২৬ আগস্ট ২০১৮ আপডেট: ০১:৩৩ , ২৬ আগস্ট ২০১৮

ডেস্ক প্রতিবেদন: ৩০ বছর বয়সের আগেই মহিলাদের গর্ভধারণে উৎসাহিত করেন অনেকে। কারণ, প্রচলিত মতে, ৩০ বছর পেরিয়ে যাওয়ার পর সন্তানধারণের ক্ষেত্রে মহিলাদের বেশ কিছু শারীরিক জটিলতার সম্মুখীন হতে হয়। বিবিসি-তে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে এ বিষয়ে বিস্তারিত ব্যাখ্যা করা হয়েছে। আসুন জেনে নেওয়া যাক, বেশি বয়সে মহিলাদের গর্ভধারণে বিষয়ে কী বলছে আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞান।

মেনোপজের পর গর্ভধারণ:
গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ১৯৯০ সালের পর থেকে ৪০ বছরের বেশি বয়সী মহিলাদের সন্তান ধারণের প্রবণতা বাড়তে শুরু করেছে। বিশেষ করে আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞানের সহায়তায় আইভিএফ বা টেস্টটিউব বেবি-র প্রযুক্তি জনপ্রিয় হয়ে ওঠায় ৪০ বছর বয়সের পরে তো বটেই, ৫০ বছর বয়স পেরিয়ে গেলেও মহিলারা গর্ভধারণে আগ্রহ দেখাচ্ছেন।

৪০ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে মেনোপজ বা রজঃনিবৃত্তির পর মহিলাদের গর্ভধারণের সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যায়। কিন্তু বয়স কম থাকতেই যদি মহিলারা নিজেদের ডিম্বাণু হিমায়িত করে রাখেন, তবে ৪০ বা ৫০ বছরের পর সে হিমায়িত ডিম্বানুকে নিষিক্ত করে তাঁরা পরবর্তীকালে আবার গর্ভধারণ করতে পারেন। আবার অন্য মহিলার ডিম্বাণু ব্যবহার করেও তাঁরা আবার গর্ভধারণ করতে পারেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেয়ার ফার্টিলিটি গ্রুপ আইভিএফ ক্লিনিকের ড: জ্যানিন এলসন জানান, বেশি বয়সে সন্তান ধারণ সম্ভব হলেও এতে বেশ কিছু ঝুঁকি সত্যিই থাকে। তাঁদের মাতৃত্বকালীন ডায়াবেটিস, প্রি-এক্লাম্পশিয়া উচ্চ কোলেস্টেরল এবং ব্রেস্ট ক্যানসারের সম্ভাবনা থাকে। তবে তাঁদের সাধারণত (ব্রেস্টফিডিং) করাতে কোনও সমস্যা হয় না।

বেশি বয়সে মা হবার আরেকটি বড় সমস্যা হল, পারিবারিক ও সামাজিক সমর্থনের অভাব। যদি কোনও মহিলা বেশি বয়সে সন্তানধারণের ইচ্ছা প্রকাশ করেন, সেক্ষেত্রে তাঁকে নানা বাধার সম্মুখীন হতে হয়। 

এই বিভাগের আরো খবর

ঘুমের মধ্যে পায়ে টান পড়ে?

ডেস্ক প্রতিবেদন: হঠাৎ প্রবল যন্ত্রণা। পা সোজা করতে পারছেন না। ভোর রাতে পায়ের পেশিতে টান লেগে আমারা অনেকেই ভুগে থাকি। ফলে অসহ্য যন্ত্রণার...

শীতকালে গরম পানিতে স্নান স্বাস্থ্যকর না ক্ষতিকর?

ডেস্ক প্রতিবেদন: শীতকাল মানেই অনিয়মিত স্নান। আর স্নান করলেও গরম পানি দিয়ে। অনেকেই মনে করেন ঠান্ডার ভয়ে স্নান না করার চেয়ে গরম পানিতে স্নান...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is