ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-19

, ৮ মহাররম ১৪৪০

মৃত্যুর গতি জানালেন বিজ্ঞানীরা

প্রকাশিত: ০৮:০১ , ১৬ আগস্ট ২০১৮ আপডেট: ০৮:০১ , ১৬ আগস্ট ২০১৮

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক: প্রতিটি জীবের মৃত্যুর স্বাদ নিতে হয়। কেউ আগে আর কেউ পরে। এই মৃত্যু কি খুব ধীরে হয় নাকি স্লথ। তবে কবিরা তাদের কবিতায় লিখেই থাকেন, মৃত্যু ধীরে আসে। কিন্তু সত্যিই কি তাই? মৃত্যু কি শ্লথ গতিতে প্রবেশ করে মানব শরীরে? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অফ মেডিসিন-এর বিজ্ঞানীরা।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাদ্যম ‘মিরর’-এর এক প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, গবেষকরা জানিয়েছেন, শরীরে মৃত্যু প্রবেশ করার পরে ফুটবল স্টেডিয়ামে ‘মাস ওয়েভ’ যেমন ভাবে দেখা দেয়, তেমন গতিতেই নাকি জীবকোষগুলি একে একে মারা যেতে শুরু করে। আর এই তরঙ্গের গতি অতি দ্রুত। প্রতি মিনিটে ৩০ মাইক্রোমিটার। যতক্ষণ না পর্যন্ত দেহের সব কোষ মারা যাচ্ছে, ততক্ষণ এই ওয়েভ চলতে থাকে।

গবেষক দলের অন্যতম সদস্য জেমস ফেরেল এবং জিয়নরুই চেং এক প্রকার ব্যাঙের ডিমের উপরে পরীক্ষা চালিয়ে দেখান, আণবিক স্তরে ‘ডেথ সিগন্যাল’ কতটা দ্রুত গতিতে কাজ করছে। কোষগুলির মৃত্যু-তরঙ্গকে তাঁরা স্পষ্ট দেখিয়েছেন এবং এই তরঙ্গকে তাঁরা ‘ট্রিগার ওয়েভ’ বলছেন। ব্যাঙের ডিম যেহেতু এক বৃহদাকৃতির কোষ, সেহেতু এই তরঙ্গ এখানে খালি চোখেই দৃশ্যমান।

এই গবেষণা নিয়ে ইতিমধ্যেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বিশ্বে। এ থেকে ক্যানসারের মতো রোগের প্রকৃতি নির্ণয় সংক্রান্ত পদ্ধতি উপকৃত হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই।

 

এই বিভাগের আরো খবর

হঠাৎ ব্রেক ফেল?

ডেস্ক প্রতিবেদন:  কোনো পূর্বাভাস ছাড়াই গাড়ির ব্রেক ফেল হয় বলে এর ঝুঁকি অনেক বেশি। ব্রেক ফেল করে কখনো কখনো প্রাণহানির ঘটনার খবর শোনা যায়।...

৫ ক্যামেরার ফোন আনছে নোকিয়া!

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক: পাঁচ ক্যামেরার অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন আনতে পারে নোকিয়া, ডিভাইসটির ফাঁস হওয়া ছবিতে এমনটাই দেখা গেছে। চলতি বছরের...

রঙিন এক্স-রের উদ্ভাবন; চিকিৎসা বিজ্ঞানে যুগান্তকারী আবিষ্কার

ডেস্ক প্রতিবেদন: চিকিৎসা বিজ্ঞানের জগতে এক যুগান্তকারী আবিষ্কার করলেন নিউজিল্যান্ডের বিজ্ঞানীরা। রঙিন এক্স-রের উদ্ভাবন করলেন তাঁরা।...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is