লাইফ টার্ম থেকে রেয়াত চায় কান্দাহার বিমান ছিনতাইকারী আপডেট: ০৫:১৯, ২১ এপ্রিল ২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যাবজ্জীবন কারাদণ্ড থেকে রেয়াত চেয়ে দিল্লি সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে কান্দাহার বিমান ছিনতাই মামলায় দোষী সাব্যস্ত আব্দুল লতিফ আদম মোমিন। বিচারপতি পিনাকি চন্দ্র ঘোষ এবং আর. এফ. নারিমানের ডিভিশন বেঞ্চে আগামী জুলাই মাসে তার শুনানি।

স্মর্তব্য, ১৯৯৯ সালের ২৪ ডিসেম্বর ১৭৬ জন যাত্রী এবং ১৫ জন বিমানকর্মীকে নিয়ে নেপাল থেকে নয়া দিল্লির উদ্দেশে রওনা দিয়েছিল ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি আইসি ৮১৪ বিমান। উড়ানের কিছুক্ষণ পরই সেটি হাইজ্যাক করে ৫ জঙ্গি। তাদের সাহায্য করে আব্দুল লতিফ আদম মোমিন ওরফে প্যাটেল, ইউসুফ নেপালি এবং দলীপ ভুজাইল।

অমৃতসর, লাহোর, দুবাই হয়ে আফগানিস্তানের কান্দাহারে বিমানটি নিয়ে যায় তারা। আফগানিস্তান তখন তালিবানদের দখলে। তাদের মধ্যস্থতাতেই প্রথমে ২৭ জন যাত্রীকে ছেড়ে দেয় জঙ্গিরা। খুন করে একজনকে। জেকেএলএফ সদস্য মুশতাক আহমেদ জারগার এবং জঙ্গি সংগঠন ‘‌জইশ ই মহম্মদ’‌-এর দুই সদস্য আহমেদ ওমর সঈদ শেখ এবং মৌলানা মাসুদ আজহারের মুক্তির শর্তে প্রায় সাতদিন পর বাকি যাত্রীদের মুক্তি দেয় তারা।

খুন ও ষড়যন্ত্রের অভিযোগে মোট ১০ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছিল সিবিআই। যাদের মধ্যে ৫ বিমানছিনতাইকারী এখন পাকিস্তানে। আব্দুল লতিফের মৃত্যুদণ্ড চেয়েছিলেন গোয়েন্দারা। তবে বিমান ছিনতাই এবং জঙ্গিদের সাহায্য করার অপরাধে ২০০৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তাদের তিনজনেরই যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় বিশেষ আদালত। 

 

Publisher : .