ঢাকা, বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-26

, ১৫ মহাররম ১৪৪০

আহত সাংবাদিকদের চিকিৎসা খরচ বহন করবে সরকার: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ০৬:১২ , ০৯ আগস্ট ২০১৮ আপডেট: ০৬:১২ , ০৯ আগস্ট ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের সময় হামলায় আহত সাংবাদিকদের চিকিৎসার খরচ সরকার বহন করবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

সচিবালয়ে বৃহস্পতিবার আওয়ামী লীগ সমর্থিত বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন এবং ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর সমাপনী বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন। 

এসময় তথ্যমন্ত্রী বলেন, যারা হামলা চালিয়েছে তাদের গ্রেপ্তার করে শাস্তির আওতায় আনা হবে। 

ভবিষ্যতে যেন গণমাধ্যমকর্মীদের উপর এ ধরনের হামলা না হয়, তা নিশ্চিত করা হবে বলে সাংবাদিক ইউনিয়ন নেতাদের আশ্বস্ত করেন তথ্যমন্ত্রী।

বৈঠকে তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, আহত সাংবাদিকদের চিকিৎসা বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে আজ বৃহস্পতিবারই চিঠি দেওয়া হবে। 

নিরাপদ সড়কের দাবিতে ঢাকার ধানমণ্ডিতে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের সময় কর্তব্যরত সাংবাদিকদের ধরে ধরে পেটায় হেলমেট পরা একদল যুবক। এসময় সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়, ধানমণ্ডি ১ নম্বর ও ২ নম্বর সড়কে বেশ কয়েকজন আলোকচিত্র সাংবাদিক আহত হন।

বিএফইউজে নেতারা তথ্যমন্ত্রীকে জানান, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় ২৪ জন সাংবাদিক হামলার শিকার হন, এদের মধ্যে ১২ জনকে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। 

গণমাধ্যমকর্মীদের উপর দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনতে সরকারকে ৭২ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়েছেন সাংবাদিক ইউনিয়ন নেতারা। শনিবার সেই সময় শেষ হবে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, “সাংবাদিকদের উপর যারা হামলা চালিয়েছে, তারা সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করতে চেয়েছে, এটা একটি পরিকল্পিত চক্রান্ত।

তিনি বলেন, “সাংবাদিকদের উপর যারা হামলা করেছে তারা দুর্বৃত্ত, তাদের গ্রেপ্তারে সব ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হবে।”

আল্টিমেটাম অনুযায়ী শনিবারের মধ্যে দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তার করে সেই খবর সাংবাদিক নেতাদের দেওয়ার চেষ্টা করবেন জানিয়ে ইনু বলেন, “আজই এনিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি, উনি উদ্যোগও নিচ্ছেন।”

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় ফেইসবুকে গুজব ছড়ানোর বিষয়টি তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, তিন-চার বছর আগের ছবিও ওই সময় ফেইসবুকে ছড়িয়ে দেওয়া হয়।

সভায় বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল, মহাসচিব শাবান মাহমুদ, কোষাধ্যক্ষ দীপ আজাদ, যুগ্ম-মহাসচিব আবদুল মজিদ এবং ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু জাফর সূর্য ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরীর বক্তব্য রাখেন। 

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, তথ্যসচিব আবদুল মালেক ছাড়াও তথ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো খবর

বাংলাদেশেও বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ পোশাক কারখানাগুলো আছে: বার্নিকাট

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ কারখানারগুলো মধ্যে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক কারখানাগুলো রয়েছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত...

বিএনপির জনসভা দুইদিন পেছালো

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকায় বিএনপির জনসভা দুইদিন পেছানোর ঘোষণা দিলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ঢাকায় বৃহস্পতিবার ২৭...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is