ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫

2018-11-15

, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

কক্সবাজারে সড়কের শৃঙ্খলার কাজে শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত: ০৩:৪০ , ০৮ আগস্ট ২০১৮ আপডেট: ০৩:৪০ , ০৮ আগস্ট ২০১৮

কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ ‘গাড়ি লাইনে চালান, ওভারটেক করবেন না, মোড়ে উল্টো দিকে গাড়ি চালাবেন না, রাস্তার উপর গাড়ি থামাবেন না’।

বুধবার কক্সবাজারের বিভিন্ন সড়কের শৃঙ্খলার কাজে ব্যস্ত শিক্ষার্থীরা এভাবেই যানবাহন চালকদের সতর্ক ও সচেতন করছিলেন।

এভাবেই নিরাপদ সড়ক ও যানজট মুক্ত করতে দায়িত্ব পালন করছেন কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী তাহারিন সরওয়ার হেনা।

শুধু হেনা নয় তার স্কুলের সহপাঠি মিফতাহুল জান্নাত, জেরিন মেহবুবা রাহি, তানিয়া মোস্তফা, প্রথমাসহ ৩০ জন ছাত্রীসহ বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীরা শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে সড়ক যানজট মুক্ত ও নিরাপদ রাখতে ট্রাফিকের পুলিশের ভুমিকায় দায়িত্ব পালন করছিলেন।

এসময় দেখা যায়, মোটর বাইক চালকদের হেলমেট মাথায় নিয়ে চলাচল করতে এবং চালকসহ তিনজন আরোহী নিয়ে চলাচল না করতে, বেপরোয়া গাড়ি না চালাতে চালকদের সাবধান করেন শিক্ষার্থীরা।

এছাড়া মাইকিং করে ট্রাফিক আইনসহ নিরাপদ যাতায়াত ও পথচারীদের পথ চলাচলে সচেতনতামুলক প্রচারণা চালান তারা।

ট্রাফিক সপ্তাহ উপলক্ষে পুলিশের পাশাপাশি পুরো শহর যানজট মুক্ত ও নিরাপদ রাখার দায়িত্ব পালন করছেন এসব শিক্ষার্থীরা।

কক্সবাজারের সহকারি পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) বাবুল চন্দ্র বনিক জানান, ‘সাবধানে চালাবো গাড়ি, নিরাপদে ফিরবো বাড়ি’ এই প্রতিপাদ্য বিষয়ের আলোকে ৫ আগস্ট থেকে শুরু হয়েছে ট্রাফিক সপ্তাহ। এবার চালক ও পথচারীদের সচেতন করতে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন শহরের বিভিন্ন সড়কে উপস্থিত হয়ে দায়িত্ব পালন করছেন। এতে অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার ট্রাফিক সপ্তাহ পালনের কর্মসূচি সচেতনতা সৃষ্টি করতে পেরেছি বেশি। চালক ও পথচারীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে সচেতনতামুলক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে শিক্ষার্থীরা।

পুলিশ সুপার ড. এ কে এম ইকবাল হোসেন জানান, এ প্রচারণায় বিভিন্ন শ্রেণির পেশার মানুষের পাশাপাশি শিক্ষার্থীরা নিজেরাও সচেতন হচ্ছেন।

 

 

এই বিভাগের আরো খবর

পরিবহন ধর্মঘটে ভোগান্তি চরমে

নিজস্ব প্রতিবেদক : সড়ক পরিবহন আইন সংস্কারসহ ৮ দফা দাবিতে সকাল ৬টা থেকে সারাদেশে চলছে ৪৮ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘট। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is