ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-23

, ১২ মহাররম ১৪৪০

হলি আর্টিজান হামলা: দুই আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

প্রকাশিত: ০১:৫৫ , ০৮ আগস্ট ২০১৮ আপডেট: ০২:০২ , ০৮ আগস্ট ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার ঘটনায় আট আসামির বিরুদ্ধে পুলিশের দেওয়া অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে পলাতক দুইজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মুজিবুর রহমান আজ বুধবার এই আদেশ দেন।

এছাড়াও এ মামলায় পলাতক দুই আসামি শহীদুল ইসলাম খালেদ ও মামুনুর রশিদ রিপনকে গ্রেপ্তার করা গেল কি না- তা জানিয়ে আগামী ১৬ অগাস্ট পুলিশকে প্রতিবেদন দিতে বলেছে মো. মুজিবুর রহমানের এ বিশেষ ট্রাইব্যুনাল। 

পাশাপাশি অভিযোগপত্রে তদন্ত কর্মকর্তার সুপারিশ অনুযায়ী এ মামলায় দুই বছর ধরে কারাবন্দি নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটির সাবেক শিক্ষক হাসনাত রেজাউল করিমকে অব্যাহতি দিয়েছেন বিচারক।

হলি আর্টিজান বেকারি এন্ড রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার মামলার চার্জশিট (অভিযোগপত্র) গ্রহণ করেছে আদালত।

বুধবার ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান আট আসামির বিরুদ্ধে দেয়া অভিযোগপত্রটি আমলে নেন।

আলোচিত এ মামলা থেকে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক হাসনাত করিমকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

আসামিদের মধ্যে ছয়জন কারাগারে এবং দুইজন পলাতক রয়েছেন।

কারাগারে থাকা ছয় আসামি হলেন- জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, রাকিবুল হাসান রিগান, রাশেদুল ইসলাম ওরফে র্যাশ, সোহেল মাহফুজ, মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান এবং হাদিসুর রহমান সাগর।

পলাতক দুইজন হলেন- শহীদুল ইসলাম খালেদ ও মামুনুর রশিদ রিপন।

এর আগে গত ২৩ জুলাই ৮ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের পরিদর্শক হুমায়ুন কবীর। ওই চার্জশির্টে হাসনাত করিমকে মামলা থেকে অব্যাহতির সুপাশির করেন তদন্ত কর্মকর্র্তা।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী গোলাম সারওয়ার খান জাকির বলেন, তদন্ত কর্মকর্তার সুপারিশ এবং হাসানাত করিমের আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেন।

তিনি জানান, চার্জশিট আমলে নেয়ার শুনানিকালে আদালতে হাসানাত করিম উপস্থিত ছিলেন। এসময় বাকি ছয় আসামিকেও আদালতে হাজির করা হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আরো জানান, মামলার দুই পলাতক আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের গ্রেপ্তার বিষয়ে আগামী ১৬ আগস্ট গুলশান থানাকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ নির্দেশ দিয়েছে।

হাসানাত করিমের পক্ষে আদালতে শুনানি করেন আইনজীবী সানোয়ার হোসাইন সমাঝদার।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৬ সালের ১ জুলাই রাতে গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁ এন্ড বেকারিতে হামলা চালায় জঙ্গিরা। এ ঘটনায় নাগরিকসহ ২০ জনকে হত্যা করা হয়। এ সময় জঙ্গিদের গুলিতে দুই পুলিশ সদস্য নিহত হন। পরে সেনাবাহিনীর অভিযানে পাঁচ জঙ্গি নিহত হয়।

ওই ঘটনায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে গুলশান থানায় একটি মামলা দায়ের করে পুলিশ।

এই বিভাগের আরো খবর

সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত আদালতে যাবেন না খালেদা জিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক : শারীরিকভাবে পুরোপুরি সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত আদালতে যাবেন না বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া। মঙ্গলবার বিকেলে, পুরোন...

কেরানীগঞ্জে বাবা-ছেলে হত্যা মামলায় ৫ জনের মৃতুদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক: ১৯৯৩ সালে কেরানীগঞ্জে বাবা-ছেলের হত্যা মামলায় পাঁচজনকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সাথে আসামিদের প্রত্যেককে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is