ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-17

, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

খুলনার বিদ্যুৎকেন্দ্র উন্নয়নে এডিবির ৫০০ মিলিয়ন ডলার ঋণ সহায়তা

প্রকাশিত: ০৫:৪০ , ০২ আগস্ট ২০১৮ আপডেট: ০৫:৪০ , ০২ আগস্ট ২০১৮

খুলনা প্রতিনিধিঃ খুলনায় বিদ্যুৎকেন্দ্র উন্নয়নে ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ঋণ সহায়তা দিয়েছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)।

বৃহস্পতিবার এডিবি এবং বাংলাদেশ সরকার খুলনায় অত্যাধুনিক ৮০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্র উন্নয়নে ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

রাজধানীতে আয়োজিত ঋণ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পক্ষে স্বাক্ষর করেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) অতিরিক্ত সচিব (এডিবি উইং) মুহাম্মদ আলকামা সিদ্দিকী এবং এডিবির পক্ষে সংস্থাটির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন পার্কাশ স্বাক্ষর করেন।

এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন পার্কাশ বলেন, ‘এই বৃহৎ প্রকল্পটি বাংলাদেশের বিদ্যুৎ খাতে এডিবির দৃঢ় ও শক্তিশালী উপস্থিতি গড়ে তুলবে। এই অত্যাধুনিক প্রকল্প সমন্বিত চক্র প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিদ্যুৎকে গ্যাসে রূপান্তর করার জন্য সর্বোচ্চ দক্ষতা দেখাবে।’

তিনি আরো বলেন, এডিবি সদস্য দেশগুলোর সুবিধার্থে নতুন ও উচ্চ-প্রভাবশীল প্রযুক্তির প্রবর্তন করার ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্ব দেয়।

প্রকল্পটির সুবিধা তুলে ধরে পার্কাশ বলেন, এর মাধ্যমে তিন লাখ গ্রাহককে অতিরিক্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ প্রদান করবে, নতুন চাকরির ক্ষেত্র তৈরি হবে এবং ব্যবসা সম্প্রসারিত হবে।

এডিবি জানায়, এই পরিবেশ বান্ধব প্রকল্প উল্লেখযোগ্যভাবে জ্বালানি নিরাপত্তা উন্নত করবে এবং এর প্রাপ্যতা বৃদ্ধি করবে।

রূপসা বিদ্যুৎকেন্দ্রে গ্যাস সরবরাহের জন্য প্রকল্পটি ১২ কিলোমিটার গ্যাস পাইপলাইন নির্মাণ করবে, ২৩০ কিলোবোল্ট সুইচইয়ার্ড নির্মাণে অর্থব্যয় করবে এবং জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য ২৯ কিলোমিটার উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ট্রান্সমিশন লাইন নির্মাণ করবে।

দারিদ্র্য নিরসনের জন্য এডিবির জাপান তহবিল থেকে ১.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের অনুদান প্রদান করা হবে।

এডিবি জানায়, এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে সমৃদ্ধ, সর্বব্যাপী, স্থিতিশীল এবং টেকসই উন্নয়ন অর্জনের জন্য এডিবি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ১৯৬৬ সালে প্রতিষ্ঠিত সংস্থাটি সদস্য দেশগুলোতে চরম দারিদ্র্যতা দূরীকরণে তার প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখছে।

প্রকল্পটির মোট খরচ ১.১৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। এর মধ্যে ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংক ৩০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থায়ন করছে এবং সরকার ৩৩৮.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থায়ন করছে।

প্রকল্পটি ২০২২ সালের শেষ নাগাদ সমাপ্ত হবে।

 

 

এই বিভাগের আরো খবর

সরকারি অনুষ্ঠানে উপস্থিতি: প্রধানমন্ত্রীতে অনাপত্তি, অর্থমন্ত্রীতে আপত্তি ইসির

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস প্রশাসন একাডেমির এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতি বিষয়ে অবহিত করা হলে অনাপত্তি জানিয়েছে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is