ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫

2018-11-15

, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

ঢাকায় পাতাল রেল, এলিভেটেড রিং রোড থাকবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১০:১৩ , ২৮ জুলাই ২০১৮ আপডেট: ১০:৩৫ , ২৮ জুলাই ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সরকার পুরো ঢাকা শহর ঘিরে পাতাল রেল লাইন, এলিভেটেড রিং রোড এবং নৌপথ নির্মাণের পদক্ষেপ হাতে নিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘নগরবাসীর যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত করার লক্ষ্যে রেল লাইন নির্মাণের জন্য আমরা সম্ভাব্যতা যাচাই করা শুরু করেছি।’

শনিবার বিকালে হাতিরঝিল সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্পের অধীনে বাড্ডা ইউ লুপ (উত্তর ইউ লুপ) উদ্বোধন শেষে এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, যোগাযোগ সহজতর করার জন্য রাজধানীর চারপাশে এলিভেটেড রিং রোড নির্মাণের পরিকল্পনাও তার সরকারের রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যোগাযোগ ব্যবস্থা আরো সহজ করতে আমরা পূর্ণাঙ্গ এলিভেটেড রিং রোড নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়েছি।’

নগরবাসী পানিপথের মাধ্যমে যাতে আরো উন্নত সেবা পেতে পারে সেজন্য ঢাকা শহর ঘিরে যে চারটি নদী রয়েছে তা সরকার খনন করবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

‘নাব্যতা ফিরিয়ে আনার জন্য আমরা নদীগুলোকে খনন করবো’, বলেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, এসব নদীতে থাকা ছোট ছোট ব্রিজগুলো ভেঙে ফেলে নতুন ব্রিজ নির্মাণ করা হবে। যাতে করে পানিপথে চলাচল করা যানগুলো বাধা না পায়।

‘আমরা এজন্য পরিকল্পনাও হাতে নিয়েছি’, যোগ করেন তিনি।

হাতিরঝিল প্রকল্প সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নদীর সাথে সংযোগ দিতে সরকার একটি সংযোগ খাল তৈরি করবে।

তিনি বলেন, ‘যদি আমরা খাল তৈরি করি তাহলে হাতিরঝিল প্রকল্পের পানি ভালো থাকবে। এটা বাস্তবায়নের জন্য আমরা পরিকল্পনাও হাতে নিয়েছি।’

এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আগের সরকারগুলো খালের ওপর বক্স কালভার্ট নির্মাণ করেছে এবং এই সিদ্ধান্ত ছিল মারাত্মক।

‘ফলে ঢাকা শহরের জলাবদ্ধতা দিন দিন বেড়েই চলেছে। আসলে বক্স কালভার্ট কোনো সমাধান নয়,’ বলেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, যদি আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার সুযোগ পায় তাহলে শুধু ঢাকা শহরেই নয় পুরো দেশের খালগুলো উন্মুক্ত করতে বক্স কালভার্ট ভেঙে ফেলা হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যদি প্রয়োজন হয় তাহলে খালের ওপর দিয়ে এলিভেটেড রোড নির্মাণ করা হবে, খালগুলো উন্মুক্ত থাকবে যা বৃষ্টির পানি দ্রুত চলাচলে সাহায্য করবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, সব বড় বড় শহরে জ্যাম নতুন কিছু নয় এবং সরকার ঢাকা শহরে ট্র্যাফিক জ্যাম কমানোর জন্য অনেক পদক্ষেপ নিয়েছে।

তিনি বলেন, ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, দিনাজপুর, বরিশাল-পায়রা এবং কোলকাতায় যোগাযোগের জন্য সরকার দ্রুতগতির ট্রেন অথবা বুলেট ট্রেনের ব্যবস্থা করবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার দেশব্যাপী ব্যাপক উন্নয়ন করেছে যার কারণে জনগণ দুইবার আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়েছে।

‘টানা দুই মেয়াদে ক্ষমতায় থাকার কারণে আমরা উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করতে পেরেছি’, বলেন তিনি।

গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, স্থানীয় এমপি একেএম রহমত উল্লাহ, আর্মি প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ এবং হাতিরঝিল সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্পের পরিচালক মেজর জেনারেল আবু সাঈদ মোহাম্মদ মাসুদ এসময় বক্তব্য রাখেন।

এই বিভাগের আরো খবর

পরিবহন ধর্মঘটে ভোগান্তি চরমে

নিজস্ব প্রতিবেদক : সড়ক পরিবহন আইন সংস্কারসহ ৮ দফা দাবিতে সকাল ৬টা থেকে সারাদেশে চলছে ৪৮ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘট। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is