ঢাকা, বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-26

, ১৫ মহাররম ১৪৪০

গাইবান্ধার ৩৩ কিলোমিটার মরণ ফাঁদ

প্রকাশিত: ০৮:৪৯ , ২৯ জুন ২০১৮ আপডেট: ০৪:১৫ , ২৯ জুন ২০১৮

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের গাইবান্ধার ৩৩ কিলোমিটার অংশ। গোবিন্দগঞ্জ থেকে ধাপেরহাট এলাকায় প্রতিনিয়তই ঘটছে দুর্ঘটনা, নষ্ট হচ্ছে যানবাহন। তবে, দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে রাস্তা নির্মাণের কারিগরি ত্র“টিকে দায়ী করছেন সংশ্লিষ্টরা। এরই মধ্যে ৫টি জায়গাবে সনাক্ত করা হয়েছে। রাস্তাটি ফোর লেনে রূপান্তর হলে দুর্ঘটনা কমে আসবে বলেও জানায় সড়ক বিভাগ।

গাইবান্ধায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের চিত্র এটি। ব্যস্ততম এই মহাসড়কের গোবিন্দগঞ্জ থেকে ধাপেরহাট পর্যন্ত ৩৩ কিলোমিটারের বেহাল দশা। ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে উত্তরবঙ্গের আট জেলার দুরপাল্লার যানবাহন। আর প্রতিনিয়তই ঘটছে ছোট-বড় দূর্ঘটনা।

এদিকে, দিন দিন মরণ ফাঁদে পরিনত হচ্ছে এই মহাসড়ক। গাইবান্ধা অংশে গত ৬ মাসে ৭২টি দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে ৪২ জন, আহত হয়েছে কয়েকশ’।

সড়কের বেহাল দশার কথা স্বীকার করলেও দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে নির্মাণে কারিগরি ত্র“টিকে দায়ী করছেন সংশ্লিষ্টরা।

মহাসড়কে দুর্ঘটনার জন্য ৫টি জায়গাকে সনাক্ত করা হয়েছে। রাস্তাটি ফোর লেনে রূপান্তর করা হলেই দুর্ঘটনা কমে আসবে।

চলতি মাসেও ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের এই অংশের দুর্ঘটনায় ২৩ জন নিহত হয়। আহত হয় শতাধিক মানুষ।

 

এই বিভাগের আরো খবর

৬ ঘন্টা পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় মালবাহী ট্রেনের ইঞ্জিন ও বগি লাইনচ্যুত হবার ৬ ঘন্টা পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।...

‘সড়ক পরিবহন আইন’ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার আশা, কঠোর প্রয়োগের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক: সড়কে শৃঙ্খলা ও নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করতে সংসদে পাস হওয়া ‘সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮’ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করছেন...

দুই ঘাটে ফেরি চলাচল ব্যহত

ডেস্ক প্রতিবেদন : পদ্মায় পানি বৃদ্ধি ও তীব্র স্রোতের কারণে শিমুলিয়া কাঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রী...

গণপরিবহনে শৃঙ্খলা আনতে কমিটি গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর গণপরিবহনে শৃঙ্খলা আনা, যানজট নিরসনে বাস রুট নির্ধারণ করা ও কোম্পানির মাধ্যমে বাস পরিচালনা পদ্ধতি প্রবর্তন...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is