ঢাকা, সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৬ ফাল্গুন ১৪২৫

2019-02-18

, ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪০

বছরে ৭০ লাখ মানুষের মৃত্যুর কারণ তামাক

প্রকাশিত: ১০:৩৫ , ৩১ মে ২০১৮ আপডেট: ১০:৩৬ , ৩১ মে ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিশ্বব্যাপী মোট মৃত্যুর প্রায় ৩১ শতাংশই হৃদরোগের কারণ, যার ১২ শতাংশই তামাকের জন্য দায়ী বলে দাবি করেছে তামাকবিরোধী সংগঠন প্রগতির জন্য জ্ঞান ‘প্রজ্ঞা’। বিশ্ব তামাক মুক্ত দিবসের আগের দিন বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির পক্ষ থেকে বলা হয়, “তামাকের নেশার ছোবল পৃথিবীতে প্রতি ৬ সেকেন্ডের কম সময়ে একজন মারা যায়। তামাক মহামারিতে এভাবে প্রতি বছর মৃত্যুসংখ্যা ৭০ লাখ। পরোক্ষ ধূমপানে মৃত্যুবরণ করে আরো নয় লাখ অধূমপায়ী মানুষ।”

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ২০১৫ সালের তথ্য মতে, কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজ বা হৃদরোগ বিশ্বের মোট মৃত্যুর একক কারণ হিসেবে শীর্ষে রয়েছে বলেও সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, “বিশ্বব্যাপী মোট মৃত্যুর প্রায় ৩১ শতাংশই হৃদরোগজনিত মৃত্যু। এর এক-তৃতীয়াংশই ঘটে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে। এই হৃদরোগজনিত মৃত্যুর প্রায় ১২ শতাংশের জন্য দায়ী তামাক ব্যবহার এবং পরোক্ষ ধূমপান।”

বর্তমানে বিশ্বে মোট তামাক ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ১ বিলিয়ন, যার ৮০ শতাংশই বসবাস করে নিম্ন বা মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে বলেও জানানো হয়। এছাড়া তামাকের ভয়াবহতা পাঠ্যপুস্তকের মাধ্যমে তুলে ধরার যে প্রতিশ্র“তি শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ প্রজ্ঞার এক অনুষ্ঠানে দিয়েছিলেন তা বাস্তবায়নে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কাজ করবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

গ্লোবাল অ্যাডাল্ট টোব্যাকো সার্ভে ২০০৯ অনুযায়ী, বাংলাদেশে ১৫ থেকে ৬৪ বছরের বয়স্কদের মধ্যে শতকরা ৪৩.৪ ভাগ অর্থ্যাৎ চার কোটি ৩০ লাখ মানুষ তামাক সেবন করে। আর পরোক্ষ ধূমপানের শিকার হন প্রায় সাড়ে চার কোটি প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ বুলেটিন ২০১৭  অনুযায়ী, ২০০৯ থেকে ২০১৬ সময়কালে জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের বহির্বিভাগে সেবা নিতে আসা রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৪১.৩ শতাংশ।

সংবাদ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক দ্য ইন্সটিটিউট ফর হেলথ মেট্রিক্স অ্যান্ড ইভালুয়েশনের (আইএইচএমই) সর্বশেষ তথ্য থেকে জানানো হয়, ২০০৫ থেকে ২০১৬ সময়কালে বাংলাদেশে অকাল মৃত্যুর কারণের তালিকায় হৃদরোগ সপ্তম স্থান থেকে প্রথম স্থানে উঠে এসেছে। এই পরিবর্তনের হার ৫২.৭ শতাংশ। আর এই মৃত্যুর জন্য দায়ী তামাকের অবস্থান চতুর্থ।

এবারের বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবসে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে পাবলিক প্লেসে ও পরিবহনে ধূমপান, তামাকপণ্যের মোড়কে আইন অনুযায়ী সচিত্র সর্তকবার্তা মুদ্রণ, তামাকপণ্যের বিজ্ঞাপন প্রচারণা ও পৃষ্ঠপোষকতাসহ তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের ধারাগুলো সঠিকভাবে বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছে প্রজ্ঞা। এছাড়া তামাক নিয়ন্ত্রণে কঠোর হতে আগামী বাজেটে তামাকের উপর কর বাড়ানোর দাবিও জানিয়ে আসছে তামাকবিরোধী সংগঠনগুলো।

১৯৮৭ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সম্মেলনে গৃহীত প্রস্তাব অনুযায়ী প্রতিবছর ৩১ মে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং এর সহযোগী সংস্থাগুলো তামাকের ঝুঁকিপূর্ণ দিক তুলে ধরে কার্যকর নীতিমালা প্রণয়নের লক্ষ্যে বিশ্বব্যাপী ‘বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস’ পালন করে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় আজ দেশের বিভিন্ন স্থানে তামাকবিরোধী সংগঠনগুলো আলোচনা সভা, শোভাযাত্রাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর

দেরিতে ঘুম থেকে উঠলে যা হয় !

অনলাইন ডেস্ক: আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা রাতে লম্বা সময় জেগে থাকেন। আর সকালে দেরি করে ওঠেন। অন্যদিকে আর এক দল আছেন যারা আগেই ঘুমোতে যান...

বসন্তে ত্বকের যত্ন

অনলাইন ডেস্ক: বসন্ত এসে গেছে। এই সময় সব থেকে বেশি চাপ পরে ত্বকে ওপর। শীতের শেষ আর গরমের শুরু। তার ওপর বিভিন্ন উৎসবে সাজ মেকআপ তো আছেই। তবে...

সুস্বাদু চকলেট মুজ

ডেস্ক প্রতিবেদন: ঘরে বসে মাত্র তিনটি উপাদানে তৈরি করতে পারেন চকলেট মুজ। জেনে নিন চকোলেট মুজ বানানোর পদ্ধতি। উপকরণ: এক কাপ বিটার সুইট চকলেট...

ঘরেই রাঁধুন মেক্সিকান খাবার

ডেস্ক প্রতিবেদন: চিকেন ফাহিতা শুধু সুস্বাদু নয় মেক্সিকোর একটি জনপ্রিয় খাবারও বটে। চিকেন ফাহিতা তৈরিতে প্রয়োজন পেঁয়াজ, লেটুস পাতা, সাওয়ার...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is