ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-25

, ১৪ মহাররম ১৪৪০

দেশে বাণিজ্যিক রূপ পেয়েছে বেসরকারি নিরাপত্তা সংস্থা

প্রকাশিত: ১০:০২ , ০৭ মে ২০১৮ আপডেট: ১১:২৯ , ০৭ মে ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : ব্যক্তিগত বা বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থার ধারনা প্রাচীন। একসময় রাজা, বাদশা, সম্রাট কিংবা সমাজের বিভিন্ন স্তরের প্রভাবশালীরা ব্যক্তি বা সম্পদের নিরাপত্তায় এমন নিজস্ব পাহারার আয়োজন রাখতো। রাষ্ট্রের ধারনার পর জনগণের নিরাপত্তায় বাহিনী গড়ে ওঠে। তার বাইরে আধুনিক এই যুগে দেশে বেসরকারি নিরাপত্তা সংস্থা বাণিজ্যিক রূপ পেয়েছে।

বিশ্রামের সময় নিজেদের সুরক্ষায় ব্যক্তিগত নিরাপত্তা কর্মী নিয়োগ করতেন প্রাচীন মিশরীয় রাজা ও রোমান সম্রাটরা। এই প্রচলন ছিলো ইতালী ও চীনের ধনাঢ্য সেনা কর্মকর্তাদের মধ্যেও। দুর্গ রক্ষায় তারা নিরাপত্তা রক্ষী নিয়োগ করতেন।

তবে, অর্থের বিনিময়ে নিরাপত্তা কর্মি নিয়োগের প্রচল ঘটে মূলত সপ্তদশ শতাব্দীর পর। যারা লাঠি আর আত্মরক্ষার জন্য আস্ত্র হাতে রাত যেগে গোটা শহর পাহারা দিতো। অষ্টাদশ শতাব্দীতে এসে গোটা বিশ্বে শিল্প বিপ্লব ঘটলে আমেরিকাসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশে প্রতিষ্ঠানিকভাবে গড়ে উঠতে শুরু করে বেসরকারি নিরাপত্তা সেবা প্রতিষ্ঠান। ভারতীয় উপমহাদেশের রাজা বাদশাহরাও মসনদ, সম্পদ ও পরিবারের সুরক্ষায় নিরাপত্তা কর্মি নিয়োগ করতেন।

১৮৫০ সালে আমেরিকায় প্রতিষ্ঠিত হয় বেসরকারি নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ’পিনকার্টুন’। প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিংকনের শাষনামলে দেশটিতে গৃহযুদ্ধ শুরু হলে তা দমনে সরকারি বাহিনীর পাশাপাশি ভিন্ন পোশাক পরিহিত পিনকার্টুনের নিরাপত্তা কর্মিদেরও ভুমিকা ছিলো।

বিশ্ব ইতিহাস বেশ পূরনো হলেও দেশে প্রথম বেসরকারি নিরাপত্তা সংস্থা হয় ১৯৮৬ সালে। ৬০ জন নিরাপত্তা কর্মিকে নিয়ে ’অতন্দ্র ও নিশ্চিত’ সিকিউরিটি সার্ভিস নামে এই সংস্থাটি এক সাবেক সেনা কর্মকর্তার নেতৃত্বে  চট্টগ্রামে কাফকো কারখানার নিরাপত্তার জন্য গড়া হয়।

এর কিছুদিন পর বিমান বাহিনীর সাবেক এক কর্মতর্কা গ্র“প ক্যাপ্টেন তাহের কুদ্দুস মাত্র তিন জন গার্ড নিয়ে সিকিউরেক্স কোম্পানী নামে যাত্রা শুরু করেন। বর্তমানে যার নিরাপত্তা কর্মি সংখ্যা প্রায় পাঁচ হাজার।

গত তিন দশকে নানা নামে এধরনের বহু বেসরকারি নিরাপত্তা সংস্থা গড়ে উঠেছে। লাভজনক ব্যবসা হওয়ায় এই ব্যবসায় বিনিয়োগ নিয়ে এসেছে বিদেশী কোম্পানীও।

 

এই বিভাগের আরো খবর

জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সামাজিক ক্লাব প্রতিষ্ঠার চর্চা

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিদেশি ভাষা হলেও ক্লাব বললেই সবাই এর অর্থ বোঝে। দেশে নানা ধরনের ক্লাব রয়েছে। যেমন- খেলার ক্লাব, সরকারি বেসরকারি বিভিন্ন...

চিংড়ি রপ্তানি মাত্র চারভাগের একভাগ, চাষে নেতিবাচক প্রভাব

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে ৩৬ প্রজাতির চিংড়ি প্রকৃতিতে পাওয়া যায়। তার মধ্যে বাগদা ও গলদাসহ মাত্র পাঁচ প্রজাতির চিংড়ি চাষ করা সম্ভব হয়। চাষ থেকে...

দেশে পাঁচ প্রজাতির চিংড়ি চাষ, আধুনিকায়ন হলে বেশি উৎপাদন সম্ভব

নিজস্ব প্রতিবেদক: চিংড়ি চাষ খুব জটিল নয়, তবে নিরিড় পরিচর্যা দারুণ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এইখানটায় দুর্বলতা চাষের চার দশকেও দূর করা যায়নি। তবে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is