ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-24

, ১৩ মহাররম ১৪৪০

খালের অভাবে বর্ষাকালে অল্প বৃষ্টিতেই তলিয়ে যায় রাজধানী

প্রকাশিত: ১০:০২ , ০৫ এপ্রিল ২০১৮ আপডেট: ০৪:১৯ , ০৫ এপ্রিল ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: খালের বিপর্যয় বহুমুখি সংকট তৈরি করেছে ঢাকা ও ঢাকাবাসীর জন্য। বর্ষাকালে অল্প বৃষ্টিতেই তলিয়ে যায় নগরী, তেমনি পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা ভেংগে পড়ায় মশার উপদ্রবে ডেঙ্গু বা চিকনগুনিয়ার মতো রোগ মহামারি আকার ধারন করে। শুধু তাই নয়, খালগুলো হারিয়ে যাওয়ায় জলবায়ু পরিবর্তনগত হুমকির মুখেও রাজধানী। খালগুলোর সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করতে পারলে পরিবেশগত উন্নয়নের পাশাপাশি যানজট নিরসনেও গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি সাধন সম্ভব হতো বলে মনে করছেন সংশি¬ষ্ট পর্যবেক্ষকরা।

গেলো বর্ষায় কয়েকঘন্টার বৃষ্টিতেই কার্যত পানির নিচে চলে যায় রাজধানী ঢাকার বিপুল এলাকা। চরম ভোগান্তিতে পরে নগরবাসী। যা কয়েক মৌসুম ধরে পরিণত হয়েছে ঢাকার নিয়মিত চিত্রে । স্বাধীনতার পর অপরিকল্পিত ও নিয়ন্ত্রনহীনভাবে ঢাকা শহরের পরিধি ও জনসংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পাওয়ায় নদী, খাল ও জলাশয় ভরাট হতে থাকে। যার ফলাফল হিসেবে নব্বই সালের পর থেকে ঢাকায় জলাবদ্ধতা সংকট প্রকটতর হচ্ছে। সংশি¬ষ্টরা বলছেন, একসময়ে পানি নিষ্কাশনে ঢাকার খালগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখলেও দিনদিন তা দখল, আর ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হওয়ায় জলাবদ্ধতার সংকটে পড়েছে নগরবাসী।

জলাবদ্ধতার হাত ধরেই বাড়ে মশার উপদ্রব। ডেঙ্গুর পর চিকুনগুনিয়ার প্রাদুর্ভাবও গেলো বছর মহামারিতে রুপ নেয় ঢাকায়। এছাড়াও জলবায়ুর পরিবর্তনগত সমস্যায় দিনদিন ঢাকার তাপমাত্রাও যেমন বেশি অনুভূত হচ্ছে তেমনি পানিরস্তরও নামছে আশংকাজনক হারে।

একসময় ঢাকার অভ্যন্তরীন যোগাযোগের প্রধান মাধ্যম ছিলো নদী ও খাল। শহরের বাইরে ও ভেতরে যাতায়াত এবং মালামাল পরিবহনে খালের গুরুত্ব ছিলো অপরিসীম। চলমান ঢাকা’র যানজট সমস্যা লাঘব এবং যাতায়াত ব্যবস্থাকে কার্যকর করতে শহরের চারপাশের নদী এবং অভ্যন্তরীন খালগুলি অপার সম্ভাবনাময় হতে পারে বলে মনে করেন নগর পরিকল্পনাবিদ ও সংশি¬ষ্ট পর্যবেক্ষকরা।

একসময় ময়লা আবর্জনার স্তুপে পরিণত হলেও সংস্কারের পর নগরীর নয়নাভিরাম সৌন্দর্যের আধার ও বিনোদনের প্রাণকেন্দ্রে হিসেবে পরিণত হয়েছে হাতিরঝিল। যার উদাহরণ টেনে ঢাকাকে আদর্শ নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে এখনো বেঁচে থাকা খালগুলির বিষয়ে আরো কঠোর হওয়ার পরামর্শ দেন সংশি¬ষ্টরা।

এই বিভাগের আরো খবর

জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সামাজিক ক্লাব প্রতিষ্ঠার চর্চা

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিদেশি ভাষা হলেও ক্লাব বললেই সবাই এর অর্থ বোঝে। দেশে নানা ধরনের ক্লাব রয়েছে। যেমন- খেলার ক্লাব, সরকারি বেসরকারি বিভিন্ন...

চিংড়ি রপ্তানি মাত্র চারভাগের একভাগ, চাষে নেতিবাচক প্রভাব

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে ৩৬ প্রজাতির চিংড়ি প্রকৃতিতে পাওয়া যায়। তার মধ্যে বাগদা ও গলদাসহ মাত্র পাঁচ প্রজাতির চিংড়ি চাষ করা সম্ভব হয়। চাষ থেকে...

দেশে পাঁচ প্রজাতির চিংড়ি চাষ, আধুনিকায়ন হলে বেশি উৎপাদন সম্ভব

নিজস্ব প্রতিবেদক: চিংড়ি চাষ খুব জটিল নয়, তবে নিরিড় পরিচর্যা দারুণ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এইখানটায় দুর্বলতা চাষের চার দশকেও দূর করা যায়নি। তবে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is