ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-19

, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

সংখ্যায় অপ্রতুল ট্রাফিক পুলিশ,আছে নানা অনিয়মের অভিযোগ

প্রকাশিত: ০৯:১০ , ০৪ এপ্রিল ২০১৮ আপডেট: ১১:১৭ , ০৪ এপ্রিল ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: হাতে গোনা শ’খানেক সদস্য নিয়ে পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ চালু হলেও বর্তমানে এই বিভাগের বিশেষ গুরুত্বের জায়গা তৈরি হয়েছে। সড়কে ব্যস্ততার সাথে তাল মিলিয়ে ট্রাফিক পুলিশের সংখ্যা ও কাজের ব্যস্ততা বেড়েছে বহুগুণ। কিন্তু এরপরেও প্রয়োজনের তুলনায় তা অপ্রতুল। ফলে বাড়ন্ত কাজের ঘাটতি সদস্যদের চাপ সামাল দিতে, কর্মীদের রোদ-বৃষ্টিÑঝড় উপেক্ষা করেই সব করতে হয়। এ কাজে পদে পদে রয়েছে নানা ঝুঁকিও।  

স্বাধীনতার আগে ১৯৭০ সালে ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনাসহ কয়েকটি বড় শহরে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার কাজে পুলিশের সদস্যরা দায়িত্ব পালন করতেন। তখনো মাত্র শ খানেক পুলিশ সদস্য হাত নেড়েই গাড়ি থামানো-চালানোর নির্দেশনা দিতেন। স্বাধীনতা পরবর্তি ৪৭ বছরে এর ব্যাপ্তি ঘটেছে অনেক, তবু তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল।

সময়ের হাত ধরে পুলিশ বাহিনীর পোশাকের পরিবর্তনের সাথে সাথে ট্রাফিক পুলিশের পোশাকেও এসেছে পরিবর্তন। তবে, শার্টের হাতা, মাথার হেলমেট, বেল্টের সাদা রং আছে অপরিবর্তিত।

ট্রাফিক পুলিশের ব্যাপ্তি ঘটবার কারণ হিসেবে সড়কের বিশৃঙ্খলা বৃদ্ধি এবং বাড়তি যানবাহনের চাঁপকেই কারণ মনে করেন সড়কের শৃঙ্খলায় নিয়োজিত মানুষেরা।

তবে, প্রয়োজনের তুলনায় এখনো ট্রাফিকের সংখ্যা অনেক কম হওয়ায় বাড়তি দায়িত্ব কাঁধে চাপে যা পালন করতে গিয়ে হিমশিম খেতে হয় ট্রাফিক পুলিশের।

বৈরি পরিবেশে অতিরিক্ত কাজের চাপ ট্রাফিক সদস্যদের মানসিকতায় সবচেয়ে নেতিবাচক পরিবর্তন আনে। মেজাজ ও স্বভাবে মৌলিক পরিবর্তন ঘটে। ফলে সাধারণ মানুষের সাথে তাদের আচরণে মাঝে মধ্যেই দ্বন্দ্ব দেখা যায়।

এছাড়া, ট্রাফিক পুলিশের নিয়ে নানা অনিয়মের অভিযোগ নতুন কিছু না। নানা অজুহাতে গাড়ির চালকদের এমন হয়রানীর দৃশ্য অহরহই চোখে পড়ে দেশ জুড়ে।

তবে, কিছু ট্রাফিক পুলিশের এমন অনাকঙ্খিত কাজের দায়ভার সবাইকে দেয়া ঠিক নয় বলে মনে করেন তাদেরই অনেক সহকর্মী।

এই বিভাগের আরো খবর

পোষ্টার ব্যানারে ছেয়ে গেছে ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা বিভাগীয় নির্বাচনী আসন গুলোতে, হোক তা শহরে কিংবা প্রত্যন্ত অঞ্চলে, পোষ্টার ব্যানারে ছেয়ে গেছে এরই মধ্যে। কর্মব্যস্ত...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is