ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-16

, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

পছন্দের মেয়েটিকে যেভাবে প্রোপোজ করবেন

প্রকাশিত: ০৫:৫৮ , ২৬ মার্চ ২০১৮ আপডেট: ০৫:৫৮ , ২৬ মার্চ ২০১৮

অনলাইন ডেস্ক: চোখের দেখাতে একটি মেয়েকে ভালো লাগতেই পারে। আর এই ভালো লাগা থেকেই মেয়েটিকে মনে ধরে যেতে পারে। ব্যাপারটা শুরু হয় এভাবেই। আর ব্যাস... আপনি ক্লিন বোল্ড! তার হাসি, তার রিনরিনে কণ্ঠস্বরে ফিদা হয়ে গেলেন আপনি। এবার পরের স্টেপ। আর সেটাই হয় খুব কঠিন ব্যাপার। ‘আপনার মনের রাজকন্যা’কে একই ভাবে আপনার মনের কথাটি বলবেন। যখনই সে সামনে আসে হাত ঘেমে যায়, ঠোঁট শুকিয়ে কাঠ।

আবার এমনও হতে পারে আপনার মনে হবে, কোনও মেয়ে বুঝি আপনার প্রেমে পড়েছে। তাহলে আপনে তার ইঙ্গিতগুলো বোঝার চেষ্টা করুন। যদি আপনি বোঝেন, সত্যিই ইঙ্গিত দিচ্ছে, তা হলে সেই সংকেতের উত্তর দিন। যদি এর পরেও আপনাকে সে ‘নাকচ’ করে দেয়, তা হলে বুঝতে হবে, আপনার বোঝাটাই ভুল ছিল। যেগুলোকে আপনি সংকেত ভেবেছিলেন, সেগুলো আদৌ সংকেত ছিল না। তবে এটাও ঠিক, এমন ভুল অনেকেরই হয়। কাজেই মন খারাপ করার কিছু নেই। জীবনই এমন সব অভিজ্ঞতার সম্মুখীন করে। জীবনই শিখিয়ে দেয় তা থেকে বেরোবার উপায়। 

যাই হোক, মনে যদি সাহস থাকে, তাহলে স্বপ্নসুন্দরীকে পাওয়ার পাওয়ার সময়ে এই চারটি কথা মনে রাখুন। তা হলেই কেল্লা ফতে।

নিজেকে তৈরি করুন- কারোকে পছন্দ করার পরে যখন তাকে মনের কথা বলতে যাচ্ছেন, তার আগে নিজেকে প্রস্তুত করুন। আর এই প্রস্তুতিটা রাতারাতি হয় না। তবে মনে মনে যদি নিজেকে একজন ভাল মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারেন, তাহলে সেটা আপনি একদিন নিশ্চয়ই হতে পারবেন।

নিজের মনকে বদলান- অনেকেরই মেয়েদের প্রতি নানারকম ধারণা আগে থেকেই জমা হয়ে থাকে মনের ভিতরে। সেগুলোকে দূরে সরান। আলাদা করে ইমপ্রেস করার চেষ্টা করবেন না। মেয়েটির সঙ্গে কথা বলার সময়ে অবশ্যই ভদ্র ও শিষ্ট হয়ে থাকুন। কিন্তু দেখবেন, বেশি ভালো মানুষ হতে গিয়ে তার কাছে নিজেকে ‘ক্যাবলা’ প্রতিপন্ন করবেন না। বরং স্বাভাবিক থাকুন। বাড়তি কোনও চেষ্টা না করে স্বাভাবিক ভাবে কথোপকথন চালান। মনে রাখবেন, আপনার কাছে সে যেমন বিপদের সময়ে গাছের ছায়া হয়ে উঠবে, তেমনই আপনার প্রতিও তার আশা, আপনি হবেন তার ‘শক্তি’। বেশি ভয়ে ভয়ে থাকলে কিন্তু আপনার ব্যক্তিত্ব প্রকাশ পাবে না। কাজেই, নিজেকে প্রতিনিয়ত তৈরি করে তুলুন।
প্রত্যাখ্যানের প্রস্তুতিও মনে মনে রাখুন- কী হবে, পছন্দের মেয়েটিকে প্রোপোজ করার পর পাত্তা না দেয়? মনে রাখবেন ঝুঁকি নিতেই হয় জীবনে। প্রেমের ক্ষেত্রেও তার ব্যত্যয় হবে কেন? হয়তো সে ‘না’ করে দেবে। কিন্তু সেই প্রত্যাখ্যানকেও সহ্য করতেই হবে আপনাকে। আর সেটা সব সময়ই মনে রাখবেন।

নিজের উপর থেকে চাপ সরান- অন্য কেউই এমন গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে না, যার কাছে পৌঁছতে চেয়ে আপনি নিজেকেও হারিয়ে ফেলবেন! খুব সহজ করে বললে, নিজেকে ভালবাসুন। স্বার্থপরতা নয়, নিজের মনের মধ্যে যেন শান্তির একটা বাতাবরণ থাকে, সেটা খেয়াল রাখুন। নিজেকে নিরাপত্তাহীন ভাববেন না।

আপনার পোশাক, কথাবার্তা, শরীরী ভাষা এই সব দিকে খেয়াল রাখবেন। স্রেফ সেই পরীক্ষায় ফেল করেও অনেকেই প্রত্যাখ্যাত হয়। মনে রাখবেন, বাহ্যিক চাকচিক্য ঝাপসা হয়ে যেতে সময় লাগে না, কিন্তু একজন মানুষের অন্তরের সৌন্দর্য মলিন হয় না, সেটা একই রকম থাকে। আর একটা কথা মাথায় রাখুন। আপনি তার ‘মনের মানুষ’ না হতে পারেন, তার ভাল বন্ধু হতেই পারেন। তার কাছে নিজেকে সঠিক ভাবে মেলে ধরুন।

এই বিভাগের আরো খবর

হঠাৎ অদৃশ্য হয় যে প্রাণী

ডেস্ক প্রতিবেদন: সমুদ্রে কিছু প্রাণী অদৃশ্য হতে পারে। বিষয়টি নানা প্রশ্ন জাগায়। আসলে কি এমন প্রাণী আছে? হ্যাঁ, কিছু প্রাণী রয়েছে যারা নিজের...

মাছও রাস্তা পার হয়!

ডেস্ক প্রতিবেদন : রাস্তার মাঝখানে বেশ খানিকটা জায়গা ফাঁকা। দুই পাশেই যানবাহনের ছোট সারি। হঠাৎ দেখায় মনে হদে পারে ট্রাফিক সিগনালে আটকে আছে...

কাজের ফাঁকে বিরতি নিন

ডেস্ক প্রতিবেদন: বিশ্বব্যাপী হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যুর হার বাড়ছে। হৃদরোগের ঝুঁকিতে আছে বহু মানুষ। সাম্প্রতিক এক সমীক্ষা প্রতিবেদন বলছে,...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is