ঢাকা, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩ বৈশাখ ১৪২৬

2019-04-25

, ১৯ শাবান ১৪৪০

অস্ত্রোপচারে স্থুলতা কমালে কিডনির জটিলতা কমে

প্রকাশিত: ০৪:০৩ , ২৬ মার্চ ২০১৮ আপডেট: ০৪:০৩ , ২৬ মার্চ ২০১৮

ডেস্ক প্রতিবেদন: অতিরিক্ত মেদ ঝরিয়ে ফিট আর সুস্থ থাকার জন্য মানুষ কত কিছুই না করে চলেছেন। ডায়েট মেনে খাবার খাওয়া থেকে শুরু করে শরীরচর্চা, সব কিছুই চলছে নিয়ম মেনে। ওজন কমানোর জন্য চিকিৎসকের পরামর্শও নিচ্ছেন। তবে, ওজন কমানোর চিকিৎসা করানো নিয়ে অনেক মানুষের মধ্যেই সংশয় থাকে। অনেকে মনে করেন, ওজন কমানোর চিকিৎসা এবং অপারেশন ডেকে আনতে পারে আরও নানা অসুখ। কিন্তু চিকিৎসকরা এ ব্যাপারে ইতিবাচক কথাই বলছেন।

শরীরে অতিরিক্ত পরিমাণে মেদ জমে গেলেই ওবেসিটির মতো রোগ দেখা দিতে পারে। আর এর ফলে অন্য বিভিন্ন রোগের প্রকোপ দেখা দিতে পারে শরীরে। হৃদরোগ, রক্তচাপ, টাইপ টু ডায়েবিটিস, কার্ডিভ্যাসকুলার রোগের মতো বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হতে পারেন। শুধু তাই নয়, ওবেসিটি বা স্থুলতার কারণে দেখা দিতে পারে কিডনির সমস্যাও। তাই শরীর থেকে অতিরিক্ত মেদ ঝরিয়ে ফেলা খুবই দরকারি। ওবেসিটি বা শরীরে জমে থাকা অতিরিক্ত মেদ ঝরানোর জন্য বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় চিকিৎসা করা হয়। যেমন, ডায়েটারি মডেফিকেশন, ফার্মালজিক্যাল এবং সার্জিক্যাল ট্রিটমেন্টও করা হয় মেদ ঝরানোর জন্য।

সম্প্রতি একটি তথ্য প্রকাশ হয়েছে। যেখানে বলা হচ্ছে, কিডনির সমস্যা মারাত্মক আকার নিলে তা প্রাণঘাতীর সম্ভাবনা বেড়ে যায়। তথ্যে আরও জানানো হচ্ছে, সার্জিক্যাল ট্রিটমেন্টের মাধ্যমে মেদ ঝরানো একদিকে যেমন ওবেসিটি বা স্থুলতার হাত থেকে মুক্তি দেয়, তেমনই কিডনির অসুখের ঝুঁকিও কমিয়ে দিতে পারে।
সুইডেনের ইউনিভার্সিটি অফ গথেনবার্গে গবেষকরা একটি পরীক্ষা করেন। যেখানে তারা ৩৭ থেকে ৬০ বছর বয়সী প্রায় চার হাজার রোগীর মধ্যে একটি সমীক্ষা চালান। ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে চালানো হয় এই সমীক্ষা। নজর রাখা হয় ওই চার হাজার মানুষের উপর। ওই ব্যক্তিদের অর্ধেকের মেদ ঝরানোর জন্য সার্জারি ট্রিটমেন্ট করে। বাকি ব্যক্তিদের নন-সার্জিক্যাল উপায়ে মেদ ঝরানো হয়। সমীক্ষা শেষে গবেষকরা জানাচ্ছেন, যাদের অপারেশনের মাধ্যমে মেদ ঝরানো হয়েছিল, তাদের মধ্যে কিডনির সমস্যা, ক্যানসার, বিভিন্ন কার্ডিওভ্যাসকুলার রোগের ঝুঁকি অনেক কমে গিয়েছে বাকিদের তুলনায়।

এই বিভাগের আরো খবর

গরমে রোগ থেকে বাঁচতে যা মেনে চলবেন

অনলাইন ডেস্ক: ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে রোগ-ব্যাধির ধরনও বদলায়। একেকটি ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে আবহাওয়ার বেশ কিছু পরিবর্তন হয়। তাপমাত্রার...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is