ঢাকা, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬

2019-04-21

, ১৫ শাবান ১৪৪০

বিআরটিএ ও পুলিশের যোগসাজসের অভিযোগ

অবাধে চলছে অনুমোদন ও ফিটনেসবিহীন সিএনজি অটোরিক্সা

প্রকাশিত: ১২:১৯ , ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭ আপডেট: ১২:১৯ , ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীতে একদিকে অবাধে চলছে অনুমোদন ও ফিটনেসবিহীন সিএনজি অটোরিক্সা। অন্যদিকে, মেয়াদত্তীর্ণ অটোরিক্সার মেয়াদ আবারোও বৃদ্ধির জন্য মরিয়া মালিকরা। দুই ক্ষেত্রেই বিআরটিএ ও পুলিশের যোগসাজসের অভিযোগ রয়েছে। এই দুই তৎপরতাকে বিপজ্জনক বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। 

ঢাকা মহানগরীতে অনুমোদিত সিএনজি অটোরিক্সার সংখ্যা ১৩ হাজার। কিন্তু বাস্তবে রাজধানীতে সিএনজি অটোরিক্সা চলে ৩০ হাজারেরও বেশী। এসকল সিএনজির মধ্যে রয়েছে ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রাইভেট সিএনজি এবং ঢাকা মেট্টোপলিটনের বাইরের সিএনজি। এগুলোর বেশীরভাগরেই মিটার পর্যন্ত নেই। আর অনুমোদনহীন হওয়ায় ফিটনেস যাচাইয়েরও সুযোগ নেই।

কর্তৃপক্ষের চোখের সামনেই এমন অনিয়ম চললেও এর বিরুদ্ধে কোন উদ্যোগ নেই। চালকরা জানান, প্রশাসনের লোকদের ম্যানেজ করেই অটোরিক্সা চালান তারা।

২০০২ ও ২০০৩ মডেলের ১৩ হাজার সিএনজি অটোরিক্সার মেয়াদ এরই মধ্যে দুই দফায় বাড়ানো হয়েছে। এগুলোর প্রায় অর্ধেকের মেয়াদ শেষ হবে আগামী ৩১ ডিসেম্বর। অতিরিক্ত মুনাফার লোভে মেয়াদ আরো ৬ বছর বাড়ানোর দাবি জানাচ্ছেন মালিকরা। জানালেন, বিআরটিএ’র পরিচালক নুরুল ইসলাম।

মেয়াদত্তীর্ণ এসকল সিএনজি অটোরিক্সার মেয়াদ আবারো বৃদ্ধি করা হলে দুর্ঘটনা বাড়বে। চালক ও যাত্রীদের জন্য বিপজ্জনক হবে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা। চালক ও যাত্রীদের নিরাপত্তার বিষয় বিবেচনা করে মেয়াদ বৃদ্ধি না করার পক্ষে মত দেন তারা।

এই বিভাগের আরো খবর

ক্রাইস্টচার্চে নিহত বাংলাদেশির সংখ্যা বাড়তে পারে: অনারারি কনসাল

নিজস্ব প্রতিবেদক: নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন অকল্যান্ডে বাংলাদেশের অনারারি কনসাল শফিকুর রহমান ভুঁইয়া।...

আন্তর্জাতিক নারী দিবস আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ ৮ মার্চ, আন্তর্জাতিক নারী দিবস। সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশেও দিবসটি উদযাপন করা হচ্ছে যথাযথ মর্যাদায়, নানা...

আইনের শাসন সূচকে ১১২তম বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: বৈশ্বিক আইনের শাসন সূচকে ১২৬ দেশের মধ্যে ১১২তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা দ্য...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is