ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-24

, ১৩ মহাররম ১৪৪০

ঘুরে আসুন “আলুটিলা গুহা”

প্রকাশিত: ০৪:৩৮ , ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭ আপডেট: ০৪:৩৮ , ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭

ডেস্ক প্রতিবেদন: ‘গুহা’ শব্দটির সঙ্গে এক অন্যতম অনুভূতি জড়িয়ে আছে। কারো কাছে গুহা মানে ভয়ের কিছু, আবার কারো কাছে এটি হলো প্রকৃতির অন্যতম রহস্য।

গুহা সম্পর্কে জানা রয়েছে প্রায় সবারই। স্বভাবতই গুহা অন্ধকার। একবার ভেবে দেখুন তো, কোনো এক অন্ধকার গুহায় আলোক মশাল নিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন। আর আপনার পা ছুঁয়ে বয়ে যাচ্ছে শীতল পানির প্রবাহ। কখনো মাথা উঁচু করে, কখনো বা মাথা নিচু করে হেঁটে চলছেন আপনি। তাহলে কেমন লাগবে আপনার, ভাবুন তো। সে এক অদ্ভুত ভালো লাগা। গুহাটি থেকে বের হয়ে আপনার মনে হতে পারে অন্য এক অজানাকে জেনেছেন আপনি।এমন এক অজানা অনুভূতিকে অনুভব করতে ঘুরে আসতে পারেন খাগড়াছড়ির আলুটিলা গুহা থেকে।

পাহাড়ের ভেতরে এই গুহা যেকোনো ভ্রমণ প্রেমীকে আনন্দ দিতে পারে। গুহাটির চারপাশে রয়েছে ঘন সবুজের অরণ্য। গুহাটি ভেতরে ১০০ মিটার দীর্ঘ, ১. ৮ মিটার উঁচু এবং শূন্য দশমিক ৯ মিটার প্রশস্ত। পুরো গুহাটি অন্ধকার।

যা যা দেখবেন

টিকেট কেটে মূল গেট দিয়ে প্রবেশ করতেই যা আপনার মনকে আনন্দে ভরিয়ে তুলবে তা হলো চারপাশের পরিবেশ। উঁচু পাহাড়ের চারপাশে সবুজের স্বর্গ। পাহাড়ের নিচে দূরে খাগড়াছড়ি সদরটির প্রায় পুরোটাই এখান থেকে দেখা যায়। আপনি যে শহর থেকে আপনার যাত্রা শুরু করেছিলেন, প্রায় ৪০ মিনিট পথ পাড়ি দেওয়ার পর সেই শহরটিকে আবার উঁচু পাহাড়ে দাঁড়িয়ে দেখার অনুভূতি সত্যি অন্য রকম।

গুহাটিতে প্রবেশ করতে হলে প্রথমে আপনাকে বেশ কয়েকটি সিঁড়ি বেয়ে নিচের দিকে নামতে হবে। নামার সময় ভাবতে পারেন যে ওঠার সময় আপনাকে হয়তো এমন অনেক সিঁড়ি দিয়ে উঠতে হবে। তবে ভয়ের কোনো কারণ নেই, নামার সময় অনেক সিঁড়ি নামতে হলেও ওঠার সময় এত বেশি সিঁড়ি আপনাকে উঠতে হবে না। ওঠার সময় সিঁড়ির সংখ্যা কম। গুহামুখে আপনি মশাল কিনতে পাবেন। প্রয়োজনে দুটি মশাল কিনে নিন।

কিভাবে যাবেন

গুহাটি দেখতে হলে আপনাকে প্রথমে যেতে হবে খাগড়াছড়ি সদরে। ঢাকা থেকে অসংখ্য বাস প্রতিদিন খাগড়াছড়ি যাতায়াত করে। যদি রাত ১০টা বা তার পর বাসে চড়ে বসেন, তাহলে পরদিন ভোর ছয়টার মধ্যে আপনি খাগড়াছড়ি পৌঁছে যাবেন।এরপর  শান্তি পরিবহনের বাসস্ট্যান্ড থেকে অথবা শাপলা মোড় থেকে আলুটিলা যাওয়ার অনেক গাড়ি পাবেন। তবে মনে রাখবেন, সব ধরনের গাড়ি পাহাড়ি রাস্তা বেয়ে ওপরে উঠতে পারে না। তবে এখানে একধরনের অটোজাতীয় গাড়ি পাওয়া যায়, যেগুলোতে চড়ে আপনি সহজেই চলে যেতে পারেন আলুটিলা গুহায়।

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is