ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১০ বৈশাখ ১৪২৬

2019-04-22

, ১৬ শাবান ১৪৪০

ঠাকুরগাঁওয়ের টাঙ্গন ব্যারেজে মাছ শিকারীদের মিলনমেলা

প্রকাশিত: ০৭:৩৬ , ০৯ নভেম্বর ২০১৭ আপডেট: ১১:১৬ , ০৯ নভেম্বর ২০১৭

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ের টাঙ্গন ব্যারেজে বসেছে মাছ শিকারীদের মিলনমেলা। বিভিন্ন জেলা থেকে এসেছেন কয়েক হাজার মাছ শিকারী। কেউ মাছ ধরে বিক্রি করছেন, কেউবা শখের বশে জাল দিয়ে মাছ ধরে বাড়ি নিয়ে যাচ্ছেন। তবে গেলবারের তুলনায় এ বছর মাছ ধরা পড়ছে কম। তারপরও মাছ ধরায় উৎসাহের কমতি নেই।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রাজাগাঁও ইউনিয়নের চাপাতি গ্রামে অবস্থিত টাঙ্গন ব্যারেজ। ১৯৯০ সালে ৪৪ দশমিক ৫০ হেক্টর জমিতে শুষ্ক মৌসুমে গম, বোরো, সরিষা ও আলু চাষে সেচ দেয়ার জন্য টাঙ্গন নদীর উপর এই বাঁধ নির্মাণ করা হয়।

প্রতিবছর শুষ্ক মৌসুমে এই বাঁধটি খুলে দেওয়া হয় চাষাবাদ করার জন্য। এসময় হাজার হাজার মাছ শিকারী এখানে আসেন মাছ ধরতে। দেশি মাছ পাওয়া যায় বলে শিকারী ও ক্রেতাদের রীতিমত ভিড় জমে যায় টাঙ্গন ব্যারেজে।

তবে এ বছর পর্যাপ্ত পরিমাণে মাছ ধরা পড়ছে না বলে জানালেন শিকারীরা। অনেককেই খালি হাতে বাড়ি ফিরতে হচ্ছে।

এদিকে, ক্রেতারা বলছেন, গত বছরের তুলনায় এবছর মাছের দাম বেশি। হাট-বাজারের তুলনায় টাঙ্গন বাঁধে মাছের দাম দ্বিগুন হওয়ায়, খালি হাতে ফিরতে হচ্ছে তাদের।

শুষ্ক মৌসুমে চাষাবাদের জন্য এই বাঁধ তৈরি করা হলেও স্থানীয়দের মাঝে এটি এখন বিনোদন কেন্দ্র হিসেবেও পরিচিতি পেয়েছে। আর মাছ ধরার এ আয়োজনকে ঘিরে এই সময়টায় এখানে রীতিমতো উৎসবের আমেজ তৈরি হয়।

 

এই বিভাগের আরো খবর

মেথি কাতলা

ডেস্ক প্রতিবেদন: এই গরমে মাঝে মাঝে মাছের বাজারে জোগানের আকাল দেখা যায়। ভেটকি, ভোলা, পাবদা, পারশে মাঝে মধ্যেই অমিল হয়ে যায় বাজার থেকে। তবে,...

সম্পর্ক মধুর রাখতে চাইলে

অনলাইন ডেস্ক: একটি সম্পর্ক গড়ে উঠতে অনেক সময় লাগে। দীর্ঘদিনের চেনা জানার মধ্য দিয়ে তৈরি হয় একটি ভালো সম্পর্ক। অনেক কষ্ট এবং ত্যাগ স্বীকার...

সম্পর্ক দৃঢ় করে আলিঙ্গন

অনলাইন ডেস্ক: আলিঙ্গন সর্ম্পককে দৃঢ় করে। শুধু তাই নয়, গবেষকরা বলছেন ভালোবাসার মানুষকে স্পর্শ করলে সুস্থ থাকে উভয়ই। স্পর্শের ফলে শরীরের...

সম্পর্কের মেয়াদ শেষ!

অনলাইন ডেস্ক: প্রেমের শুরুতে সবাই চায়, সম্পর্কটি টিকে থাকবে আমৃত্যু। দু’জন-দু’জনের চোখে চোখ, হাতে হাত রেখে জীবনটা কেটে যাক। কিন্তু সব...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is