সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় সিক্ত হলেন মরহুম মিজারুল কায়েস আপডেট: ০৯:৫৫, ২০ মার্চ ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা-ভা্লোবাসায় সিক্ত হলেন ব্রাজিলে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও সাবেক পররাষ্ট্র সচিব মিজারুল কায়েস। আজ সোমবার সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রথমে তাঁর মরদেহে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয়।

এর পর শ্রদ্ধা জানান শিক্ষাবিদ, সাবেক কূটনীতিক, কবি, শিল্পী, সাহিত্যিক, বন্ধু, সুহৃদসহ সব শ্রেণী-পেশার মানুষ। এর আগে সকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তাঁর প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। আগামীকাল মঙ্গলবার বনানী কবরস্থানে মিজারুল কায়েসকে দাফন করা হবে। 

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রাঙ্গণে এই জমায়েতে ব্রাজিলে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতও যোগ দেন, সাবেক পররাষ্ট্র সচিব মিজারুল কায়েসকে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য। সাবেক এই কূটনীতিকের মরদেহ মন্ত্রণালয় প্রাঙ্গণে পৌঁছানোর আগেই সেখানে জড়ো হন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ প্রয়াতের দীর্ঘদিনের বন্ধু ও সাবেক কূটনীতিকরা। সেখানে অনুষ্ঠিত প্রথম নামাজে জানাজায় পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা অংশ নেন।
 
পরে তাঁর মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে। সেখানে  মিজারুল কায়েসের মরদেহে প্রথমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তাঁর সহকা্রী সামরিক সচিব কর্নেল মোহাম্মদ মাহবুবুর রশিদ। পরে একে একে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন পরিবার, দীর্ঘদিনের বন্ধু, সাবেক কূটনীতিক, শিক্ষাবিদ, সংস্কৃতিকর্মীসহ সব শ্রেণী ও পেশার মানুষ। প্রয়াত এই কূটনীতিককে যথাযোগ্য সম্মান দিয়ে স্মরণীয় করে রাখার প্রত্যয় জানান তাঁরা।

বাদ আছর গুলশান আজাদ মসজিদে দ্বিতীয় নামাজে জানাজার পর আগামীকাল মিজারুল কায়েসের মরদেহ নেয়া হবে তাঁর জন্মস্থান কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায়। সেখানে তৃতীয় দফায় জানাজাশেষে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় আনা হবে মরদেহ।

পরে বাদ জোহর রাজধানীর বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে সদ্যপ্রয়াত এই কূটনীতিককে। গত ১১ মার্চ ব্রাজিলে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে কর্মরত অবস্থায় অসুস্থ হয়ে মারা যান মিজারুল কায়েস।
 

 

Publisher : Jyotirmoy Nandy